বুধবার | অক্টোবর ২১, ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭

শেয়ারবাজার

চামড়া বিক্রির লক্ষ্যে তিন কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করবে এপেক্স ট্যানারি

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ১২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ প্রদানের সুপারিশ করেছে এপেক্স ট্যানারি লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ। পাশাপাশি নিজেদের প্রক্রিয়াজাত চামড়া তিনটি পাদুকা রফতানিকারক কোম্পানির কাছে বিক্রির জন্য একটি চুক্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানিটির পর্ষদ।

সমাপ্ত হিসাব বছরে এপেক্স ট্যানারির শেয়ারপ্রতি লোকসান হয়েছে ১ টাকা ১৯ পয়সা (ফেয়ার ভ্যালুয়েশন উদ্বৃত্ত বাদে), আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১ টাকা ৪১ পয়সা। ৩০ জুন কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৬৩ টাকা ৮৯ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৬৯ টাকা ২১ পয়সা।

সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন, ঘোষিত লভ্যাংশসহ অন্যান্য এজেন্ডা পর্যালোচনা ও অনুমোদনের জন্য আগামী ২৫ নভেম্বর বেলা ১১টায় ডিজিটাল প্লাটফর্মে কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আহŸান করা হয়েছে। এ-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ অক্টোবর।

প্রক্রিয়াজাত চামড়া বিক্রির জন্য এফবি ফুটওয়্যার লিমিটেড, ফুটবেড ফুটওয়্যার লিমিটেড ও ন্যুভো শুজ (বিডি) লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এপেক্স ট্যানারির পরিচালনা পর্ষদ। উলে­খ্য, এপেক্স ট্যানারির কয়েকজন পরিচালক এ তিন কোম্পানিরও পরিচালক হিসেবে দায়িত্বরত।

চুক্তি অনুযায়ী, এফবি ফুটওয়্যার, ফুটবেড ফুটওয়্যার ও ন্যুভো শুজের কাছে বার্ষিক যথাক্রমে ১৬ কোটি ৫০ লাখ, ৩ কোটি ২৫ লাখ ও ১ কোটি ২৫ লাখ ৫০ হাজার টাকার প্রক্রিয়াজাত চামড়া বিক্রি করবে এপেক্স ট্যানারি। তবে বাজার চাহিদার ভিত্তিতে এ বিক্রির পরিমাণ কিছুটা কমও হতে পারে।

২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৩৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে এপেক্স ট্যানারি। ২০১৮ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয় তারা। চামড়া খাতের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি ২০১৭ হিসাব বছরেও ৪০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আজ এপেক্স ট্যানারি শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ১০৯ টাকা। সমাপনী দর ছিল ১০৮ টাকা ৪০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯০ টাকা থেকে ১২৭ টাকার মধ্যে ওঠানামা করেছে।

১৯৮৫ সালে তালিকাভুক্ত এপেক্স ট্যানারির অনুমোদিত মূলধন ৫০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১৫ কোটি ২০ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ৪৮ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ১ কোটি ৫২ লাখ ৪০ হাজার। এর মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের কাছে ৩১ দশমিক ৩ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ৩৬ দশমিক ৮৬ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে বাকি ৩১ দশমিক ৮৪ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন