বুধবার | অক্টোবর ২৮, ২০২০ | ১২ কার্তিক ১৪২৭

শেয়ারবাজার

মার্জিন ঋণ সংক্রান্ত বিএসইসির নির্দেশনায় পরিবর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্সের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে  মার্জিন ঋণ প্রদানের জন্য সম্প্রতি একটি নতুন নীতিমালা জারি করেছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। নতুন নিয়ম অনুসারে সূচক বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মার্জিন ঋণের পরিমাণ কমতে থাকবে। নতুন এ নীতিমালায় আংশিক পরিবর্তন এনে আজ মঙ্গলবার বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করা হয়েছে।

পরিবর্তিত নীতিমালা অনুসারে ডিএসইএক্স সূচক ৪ হাজারের নিচে থাকলে গ্রাহকদের সর্বোচ্চ ১:০.৭৫ হারে অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে এর ৭৫ শতাংশ অর্থ মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। সূচক ৪০০১ থেকে ৭০০০ পর্যন্ত থাকলে ১:০.৫০ হারে অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে তার অর্ধেক পর্যন্ত মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। সূচক ৭০০১ বা এর বেশি হলে মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে ১:০.২৫ অনুপাতে। অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে এর ২৫ শতাংশ মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। আগামী বছরের ১ জানুয়ারি থেকে এ আদেশ কার্যকর হবে।

এর আগে এ বছরের ২১ সেপ্টেম্বর জারি করা বিএসইসির আদেশে বলা হয়েছিল, ডিএসইএক্স সূচক ৪ হাজারের নিচে থাকলে গ্রাহকদের সর্বোচ্চ ১:১ হারে অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে এর সমপরিসাণ অর্থ মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। সূচক ৪০০১ থেকে ৫০০০ পর্যন্ত থাকলে ১:০.৭৫ হারে অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে তার ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। সূচক ৫০০১ থেকে ৬০০০ থাকলে মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে ১:০.৫০ অনুপাতে। অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে এর অর্ধেক মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। আর ডিএসইএক্স ৬ হাজার বা তার বেশি হলে ১:০.২৫ হারে অর্থাৎ যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে তার ২৫ শতাংশ মার্জিন ঋণ দেয়া যাবে। এ বছরের ১ অক্টোবর থেকে এ আদেশ কার্যকর হওয়ার কথা ছিল।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে মার্জিন ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে কোনো শ্রেণীকরণ নেই। সবক্ষেত্রেই ১:০.৫০ আনুপাতে ঋণ দেয়া যায়। এক্ষেত্রে গ্রাহকের যত টাকার বিনিয়োগ রয়েছে তার অর্ধেক পরিমাণ অর্থ মার্জিন ঋণ হিসেবে দেয়া যায়।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন