বুধবার | অক্টোবর ২৮, ২০২০ | ১২ কার্তিক ১৪২৭

পণ্যবাজার

জ্বালানি তেল

২০২৩ সালে উত্তোলন বাড়াবে রাশিয়া

বণিক বার্তা ডেস্ক

অর্গানাইজেশন অব দ্য পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজের (ওপেক) সদস্য না হয়েও জোটের আওতায় অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বৈশ্বিক উত্তোলন হ্রাস চুক্তির শর্ত মেনে চলছে রাশিয়া। ২০২২ সালে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে। এর এক বছরের মাথায় জ্বালানি তেলের উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে রাশিয়া। রুশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের এমন এক পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছর রাশিয়ার নিজস্ব কূপগুলো থেকে সব মিলিয়ে ৫০ কোটি ৭৪ লাখ টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন হতে পারে। তবে আগামী তিন বছরে দেশটি পর্যায়ক্রমে জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন বাড়াবে। ধারাবাহিকতায় ২০২৩ সালে গিয়ে রাশিয়ার নিজস্ব কূপগুলো থেকে সব মিলিয়ে ৫৬ কোটি টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলনের সম্ভাবনা রয়েছে। দৈনিক হিসাবে এর পরিমাণ দাঁড়াতে পারে কোটি ১২ লাখ ব্যারেলে। অর্থাৎ তিন বছরের ব্যবধানে রাশিয়ায় জ্বালানি তেল উত্তোলন বাড়তে পারে কোটি ২৬ লাখ টন।

বর্তমানে ওপেকের চুক্তির আওতায় বেঁধে দেয়া কোটায় অপরিশোধিত জ্বালানি তেল উত্তোলন সীমিত রেখেছে রাশিয়া। যদিও চুক্তির বিষয়ে রুশ জ্বালানি প্রতিষ্ঠানগুলোর আপত্তি ছিল। তবে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি পণ্যটির কাঙ্ক্ষিত মূল্যবৃদ্ধিতে অবদান রাখতে রুশ সরকার ওপেকের সদস্য না হয়েও চুক্তির শর্ত মেনে নেয়। ২০২২ সালের এপ্রিলে ওপেকের আওতায় অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের বৈশ্বিক উত্তোলন হ্রাসসংক্রান্ত চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে। মূলত এর পর পরই জ্বালানি পণ্যটির উত্তোলন বাড়ানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে রুশ সরকার।

এদিকে চলতি বছর রাশিয়া থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে ২২ কোটি ৫০ লাখ টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে দেশটির জ্বালানি মন্ত্রণালয়, যা আগের বছরের তুলনায় কোটি ৪২ লাখ টন কম। ২০২৩ সাল নাগাদ দেশটি থেকে সব মিলিয়ে ২৬ কোটি ৬২ লাখ টন অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানির সম্ভাবনা রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন