বুধবার | অক্টোবর ২১, ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭

শেয়ারবাজার

জিএসপি ফিন্যান্সের ১০.৫% স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক

৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৬ শতাংশ নগদ ও ৪ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ প্রদানের সুপারিশ করেছিল জিএসপি ফিন্যান্স কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংক এ লভ্যাংশ প্রস্তাবনায় অনুমোদন না দিয়ে ১০ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ অনুমোদন করেছে। 

গতকাল বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) পরিচালনা পর্ষদ আগের সুপারিশের পরিবর্তে ১০ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশের অনুমোদন দিয়েছে। ফলে সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা এ হারেই স্টক লভ্যাংশ পাবেন।

সমাপ্ত হিসাব বছরে জিএসপি ফিন্যান্সের সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪৬ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ২ টাকা ৪০ পয়সা। ৩১ ডিসেম্বর কোম্পানিটির সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২২ টাকা ৪৯ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ২২ টাকা ৮৪ পয়সা।

২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য বিনিয়োগকারীদের ১৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল জিএসপি ফিন্যান্স। ২০১৭ হিসাব বছরে ২৩ দশমিক ৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আজ বৃহস্পতিবার জিএসপি ফিন্যান্স শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ১৮ টাকা ৪০ পয়সা। সমাপনী দর ছিল ১৮ টাকা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ১১ টাকা ৩০ পয়সা ও ১৯ টাকা।

২০১২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জিএসপি ফিন্যান্সের অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১৪২ কোটি ১৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ১৪৮ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ার সংখ্যা ১৪ কোটি ২১ লাখ ৪৩ হাজার ৫১৬। এর মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে রয়েছে ৩৫ দশমিক ৫১ শতাংশ শেয়ার। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২২ দশমিক ২৬ শতাংশ, বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কাছে ২ দশমিক শূন্য ৫ ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে বাকি ৪০ দশমিক ১৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন