মঙ্গলবার | অক্টোবর ২০, ২০২০ | ৫ কার্তিক ১৪২৭

খবর

প্রভাবশালীদের বাদ দিয়ে সাহেদসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাসপাতাল পরিচালনার লাইসেন্সের মেয়াদ না থাকার পরও করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ চিকিৎসার জন্য চুক্তি করে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) তবে মামলায় আসামি হিসেবে প্রভাবশালী কারো নাম আসেনি।

মামলায় করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা চিকিৎসায় খরচ বাবদ কোটি ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-- সংস্থাটির উপপরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী মামলাটি করেন। সাহেদ ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক আমিনুল হাসান, উপপরিচালক (হাসপাতাল-) ডা. মো. ইউনুস আলী, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল-) ডা. মো. শফিউর রহমান এবং গবেষণা কর্মকর্তা ডা. মো. দিদারুল ইসলাম।

রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে করা চুক্তির বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব আসাদুল ইসলাম স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক, তবে দুদকের মামলায় আসামি করা হয়নি তাদের।

দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত বলেন, অনুসন্ধানে যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে তাদের আসামি করা হয়েছে। অনুসন্ধান কর্মকর্তা যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের সরাসরি প্রমাণ পেয়েছেন তাদের আসামি করা হয়েছে। তবে এখানেই শেষ নয়, তদন্তে যদি আর কারো সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় তাদেরও চার্জশিটে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন