শুক্রবার | অক্টোবর ৩০, ২০২০ | ১৫ কার্তিক ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

হাসপাতাল ছাড়লেন নাভালনি

রাশিয়ায় ফিরতে বাধা দেখছে না ক্রেমলিন

বণিক বার্তা ডেস্ক

জার্মানির হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন ক্রেমলিন সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনি। নার্ভ এজেন্ট নোভিচক প্রয়োগে অসুস্থ হয়ে কোমায় চলে যাওয়ার পর জার্মানির বার্লিনের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় বুধবার বার্লিনের চ্যারিটি হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। শিগগিরই রাশিয়ায় ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কড়া সমালোচক। ক্রেমলিন থেকে গতকাল জানিয়ে দেয়া হয়, নাভালনি যেকোনো সময়েই রাশিয়ায় ফিরতে পারবেন। খবর এএফপি রয়টার্স।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ গতকাল জানান, নাভালনির মস্কোতে ফেরা নিয়ে আমাদের মত হলো রাশিয়ার অন্য যেকোনো নাগরিকের মতো তিনি যেকোনো সময় দেশে ফিরতে পারেন।

সাইবেরিয়া থেকে মস্কোতে ফেরার পথে একটি ফ্লাইটে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। বার্লিনের চ্যারিটি হাসপাতালে ৩২ দিনের চিকিৎসা গ্রহণ শেষে ছাড়া পেলেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করেছেন রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা। যেখানে তাকে কারো সহায়তা ছাড়া একাই দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। ছবি পোস্ট করে তিনি বলেছেন, পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠার সব সুযোগ চিকিৎসকরা তাকে দিয়েছেন। তবে মারাত্মক বিষপ্রয়োগের কারণে এর সম্ভাব্য দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব সেরে উঠতে কতদিন লাগতে পারে সে ব্যাপারে এখনই বলা যাচ্ছে না।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে নাভালনিকে বিষাক্ত নার্ভ এজেন্ট নোভিচক প্রয়োগের অভিযোগ তুলেছে তার দল। তবে ক্রেমলিন দৃঢ়ভাবে অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

গত ২০ আগস্ট রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা সাইবেরিয়ায় বিমানের একটি ফ্লাইটে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে জার্মানির রাজধানী বার্লিনের চ্যারিটি হাসপাতালে নেয়া হয় তাকে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা কোমা থেকে চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন বলে জানান বার্লিনের চিকিৎসকরা। পরে তাকে ভেন্টিলেটর থেকে সরিয়ে হাসপাতালের সাধারণ শয্যায় স্থানান্তর করা হয়।

জার্মানি ছাড়াও ফ্রান্স, সুইডেনেও পরীক্ষা করে নাভালনিকে নোভিচক নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগের সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানিয়েছে জার্মান সরকার। কিন্তু ক্রেমলিন বলছে, এর কোনো প্রমাণ নেই। নাভালনির সমর্থকরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করেছিলেন, মস্কোর উদ্দেশে বিমানে যাত্রা শুরুর আগে সাইবেরিয়ার টমস্ক বিমানবন্দরে চা পান করেছিলেন নাভালনি। সেখানে চায়ের সঙ্গে বিষাক্ত কিছু প্রয়োগ করা হয়ে থাকতে পারে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তারা জানান, টমস্ক শহরের হোটেলের যে কক্ষে নাভালনি অবস্থান করছিলেন, সেই কক্ষের একটি পানির বোতলে নার্ভ এজেন্ট শনাক্ত হয়েছে। টমস্ক বিমানবন্দর থেকে মস্কোর উদ্দেশে ফ্লাইট উড্ডয়ন করার পর পরই অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি।

পরে রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতাকে বহনকারী বিমানটি ওমস্ক শহরে জরুরি অবতরণ করে। চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার অনুমতি দেয়া নিয়ে সময়ক্ষেপণ শুরু করে রাশিয়ার কর্মকর্তারা। দুই দিন পর নাভালনিকে জার্মানিতে চিকিৎসার জন্য নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়। পরীক্ষায় তাকে অত্যন্ত মারাত্মক নার্ভ এজেন্ট নোভিচক প্রয়োগের বিষয়টি নিশ্চিত হয় জার্মানি। ঘটনায় স্বচ্ছ তদন্ত করতে রাশিয়ার ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন