বুধবার | অক্টোবর ২১, ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭

খবর

‘রিফ্লেক্সোলজি হতে পারে সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষার অন্যতম উপায়’

বণিক বার্তা অনলাইন

মাত্রাতিরিক্ত চাপে থাকা স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থায় শুধু অ্যালোপ্যাথি দিয়ে সবার জন্য স্বাস্থ্য নিশ্চিত করা অসম্ভব। এর জন্য চাই বৃহত্তর পরিসরে ‘রিফ্লেক্সোলজি’ এর মত জনমুখী স্বাস্থ্যসেবা পদ্ধতির প্রসার। পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীন এবং স্ব-চিকিৎসা উপযোগী এ পদ্ধতিটি নানা শারীরিক ও মানসিক রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। তাই রিফ্লেক্সোলজি হয়ে উঠতে পারে সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষার অন্যতম উপায়।

‘রিফ্লেক্সোলজি : ধারণা ও প্রয়োগ’ নামে একটি বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে উপস্থিত বক্তারা এসব কথা বলেন। বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘হারমনি ট্রাস্ট’ প্রকাশিত বইটির অনলাইন প্রকাশনা উৎসবটি গত ২১ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে শুরু হয়ে চলে রাত সোয়া ৯টা পর্যন্ত। 

সংগঠনটির ফেসবুক পেজে প্রচারিত লাইভ ইভেন্টটিতে অতিথি হিসেবে যুক্ত হয়েছিলেন বিএমএ’র সাবেক সভাপতি ও বিএসএমএমইউ  এর প্রাক্তন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. রশিদ-ই-মাহবুব, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. শুভাগত চৌধুরী, আইইডিসিআর এর উপদেষ্টা ডা. এম মুশতাক হোসেন, বিশিষ্ট লেখক ও প্রবীণ সাংবাদিক সোহরাব হাসান, সিআইডি এর ডিআইজি (সাইবার পুলিশ) মো. শাহ আলম, বিশিষ্ট নৃবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড.আইনুন্নাহার, বিশিষ্ট প্রতিবেশ গবেষক ও উন্নয়ন সংস্থা সিএনআরএস  এর প্রধান নির্বাহী ড. এম. মোখলেসুর রহমান, উন্নয়ন চিন্তাবিদ জ্যোতি চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।

দেশে প্রথমবারের মতো ‘ওয়ার্ল্ড রিফ্লেক্সোলজি উইক’ উদযাপনের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে হারমনি ট্রাস্ট আয়োজিত অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট জনস্বাস্থ্যবিদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইন্সটিটিউটের খণ্ডকালীন শিক্ষক ও হারমনি’র ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপার্সন ডা. মুহাম্মদ আব্দুস সবুর। সঞ্চালনা করেন প্রতিবেশ ও প্রাণবৈচিত্র্য গবেষক পাভেল পার্থ।

অনুষ্ঠানটিতে আরো উপস্থিত ছিলেন বইটির লেখক রিফ্লেক্সোলজিস্ট সৈয়দা শাহিদা সুলতানা ও সহলেখক রিফ্লেক্সোলজি গবেষক এবং হারমনি ট্রাস্টের প্রধান নির্বাহী অমিতাভ ভট্টাচার্য্য।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন