বুধবার | অক্টোবর ২১, ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭

শেষ পাতা

প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১৬৪ কোটি টাকা অনুদান বিএবির

নিজস্ব প্রতিবেদক

একদিকে নভেল করোনাভাইরাস সৃষ্ট মানবিক আর্থিক দুর্যোগ, অন্যদিকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বিস্তীর্ণ জনপদের মানুষ। অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে বরাবরের মতোই এগিয়ে এল বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকস (বিএবি) বেসরকারি ব্যাংক উদ্যোক্তাদের সংগঠনটি গতকাল প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে অনুদান হিসেবে ১৬৪ কোটি টাকা জমা দিয়েছে।

করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) ব্যয় হিসেবে ৩৪টি বেসরকারি ব্যাংক গতকাল অর্থ প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দেয়। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে মুখ্য সচিব . আহমদ কায়কাউস অনুদান গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

নভেল করোনাভাইরাস মোকাবেলায় এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১৪৭ কোটি ৭৩ লাখ টাকা অনুদান দেয় বিএবি। এর আগে চলতি বছরের শুরুতেও মুজিব বর্ষ উদযাপনের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্টে ২২৭ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছিল ব্যাংকগুলো। এবার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অংশ হিসেবে ১৬৪ কোটি টাকা ত্রাণ তহবিলে জমা দেয়া হলো। সব মিলিয়ে চলতি বছরই ৫৩৮ কোটি টাকা অনুদান দিল সংগঠনটি।

বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানোর অংশ হিসেবে গতকাল প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১০ কোটি টাকা করে জমা দিয়েছে সাতটি বেসরকারি ব্যাংক। ব্যাংকগুলো হলো ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, এক্সিম ব্যাংক, দ্য সিটি ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা, ইস্টার্ন, ন্যাশনাল প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড।

ত্রাণ তহবিলে কোটি টাকা করে জমা দিয়েছে ১৮টি ব্যাংক। ব্যাংকগুলো হলো এবি ব্যাংক, আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, এনসিসি ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড।

এছাড়া ট্রাস্ট ব্যাংক কোটি এবং চতুর্থ প্রজন্মের ইউনিয়ন ব্যাংক, মিডল্যান্ড ব্যাংক, মধুমতি ব্যাংক, এনআরবি ব্যাংক, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক, এসবিএসি ব্যাংক পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড ২৫ লাখ টাকা করে অনুদান দিয়েছে।

প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম মজুমদার বণিক বার্তাকে বলেন, যে কোনো দুর্যোগে বেসরকারি ব্যাংকগুলো সামর্থ্য অনুযায়ী জনগণের পাশে দাঁড়ায়। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা দেশে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ১৪৭ কোটি ৭৩ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছিলাম। এবার বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর অংশ হিসেবে ১৬৪ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছি। ভবিষ্যতেও দেশের যে কোনো দুর্যোগে বেসরকারি ব্যাংকগুলো সামর্থ্য অনুযায়ী এগিয়ে আসবে।

এছাড়া আরো ছয়টি সংস্থা যেমন খাদ্য মন্ত্রণালয়, ফোসা (ফরেন অফিসার্স স্পাউস অ্যাসোসিয়েশন), রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ইনস্টিটিউট অব আর্কিটেক্টস বাংলাদেশ (আইএবি), বাংলাদেশ জুডিশিয়াল এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন এবং মিনিস্টার গ্রুপও তহবিলে অনুদান দিয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন