বৃহস্পতিবার | অক্টোবর ২৯, ২০২০ | ১৪ কার্তিক ১৪২৭

খবর

সীমান্তে অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত বিজিবি-বিএসএফের

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী। পাশাপাশি আগ্নেয়াস্ত্র চোরাকারবারীদের ডিজিটাল ফটোগ্রাফ উভয় বাহিনীর মধ্যে বিনিময়েরও সিদ্ধান্ত হয়েছে। ঢাকায় অনুষ্ঠিত বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ের ৫০তম সীমান্ত সম্মেলন শেষে যৌথ প্রেস বিবৃতিতে শনিবার এসব সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

সম্মেলনে বেশ কিছু সীদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে দুই দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী। সীমান্তে উভয় দেশের নিরস্ত্র নাগরিকদের হত্যা, আহত বা মারধরের ঘটনা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার লক্ষ্যে ঝুঁকিপূর্ণ সীমান্তবর্তী এলাকায় যৌথ টহল পরিচালনা বৃদ্ধি, জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি আরও বেগবান করা এবং প্রয়োজন মাফিক আর্থ-সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মসূচি গ্রহণসহ সীমান্তে অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণে উভয়পক্ষই সম্মত হয়েছেন। 

পাশাপাশি ঝুঁকিপূর্ণ সীমান্তে যৌথ টহল পরিচালনাসহ সমন্বিত কার্যক্রম গ্রহণ এবং সীমান্ত এলাকায় বসবাসকারী নাগরিকদের মাঝে আন্তর্জাতিক সীমানা আইনের বিধি-বিধান সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে সীমান্তে আক্রমণ বা হামলার ঘটনা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে উভয় পক্ষই সম্মত হয়েছেন।

গত ১৬ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলা সীমান্ত সম্মেলনে বিএসএফ মহাপরিচালক রাকেশ আস্থানার নেতৃত্বে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনের প্রতিনিধিসহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধিদল বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ের ঢাকায় অনুষ্ঠিত ৫০তম সীমান্ত সম্মেলনে অংশ নেন। 

অপরদিকে বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলামের নেতৃত্বে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিসহ ১৩ সদস্যের প্রতিনিধিদল সম্মেলনে অংশগ্রহন করেন। বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ের পরবর্তী ৫১তম সীমান্ত সম্মেলন আগামী নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ভারতের গৌহাটিতে অনুষ্ঠানের ব্যাপারে একমত পোষণ করেছেন দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর প্রধান।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন