শনিবার | সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০ | ৪ আশ্বিন ১৪২৭

টকিজ

‘ভোরের ট্রেন’

ফিচার প্রতিবেদক

নদীর ধারে একটা মফস্বল শহর। বৃদ্ধা মাকে নিয়ে তিন ভাইয়ের যৌথ পরিবার। তিন ভাইয়ের স্ত্রী-ছেলেমেয়ে নিয়ে আটজন এবং দুজন কাজের সহকারী। বড় ভাই আমজাদ সাহেব বাড়ির প্রধান। বাড়ির সবাই তাকে ভয় পায়। ছোট ভাই আদনান দুই বছর হলো বিয়ে করেছে। তার স্ত্রী রূপা গর্ভবতী। তার বয়স ১৮-১৯। আর পরিবারের মেজো ভাই আলতাফ বছর পাঁচ আগে হঠাৎ করে মারা যান। আলতাফের স্ত্রী শাহনা এবং মেয়ে জয়া বাড়িতেই থাকেন। জয়া এবার এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। পরীক্ষা যেদিন শেষ হয় তার পরদিনই কোনো এক পাত্রপক্ষ তাকে দেখতে আসে। জয়া বাধ্য হয়ে সেজেগুজে পাত্রপক্ষের সামনে গিয়ে বসে। আমজাদ সাহেবের কথার ওপর বাড়ির কেউ কথা বলে না। জয়া তার মার কাছে কান্নাকাটি করে। শাহনা তার ভাসুরকে ভয়ে ভয়ে বলেন, এখন বিয়ে কী দরকার? আমজাদ সাহেব ধমক দেন। আমজাদ সাহেব বলেন পাত্র পছন্দ না হলে বলো আমি আরো পাত্র সন্ধান করব। কিন্তু বাড়ির মেয়েদের বয়সেই বিয়ে হবেএমন কাহিনী ঘিরে নির্মাতা সাইদুর রহমান রাসেল নির্মাণ করেছেন টেলিফিল্ম ভোরের ট্রেন

মাসুম শাহরিয়ারের রচনায় এতে অভিনয় করেছেন সুবর্ণা মুস্তাফা, তাসনিয়া ফারিন, খায়রুল আলম সবুজ, নাফিসা চৌধুরী নাফা, মহসিন আলম, রিনা রহমান, আহসান হাবিব নাসিম প্রমুখ। টেলিফিল্মটি চ্যানেল আইতে আজ বেলা ৩টা মিনিটে প্রচারিত হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন