শনিবার | সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০ | ৪ আশ্বিন ১৪২৭

খেলা

বিফলে বিলিংসের সেঞ্চুরি

ক্রীড়া ডেস্ক

লক্ষ্যটা চ্যালেঞ্জিং ছিল। তারপরও হার মানতে চাননি স্যাম বিলিংস। সঙ্গ পেয়েছিলেন জনি বেয়ারস্টোর কাছ থেকে। কিন্তু এ দুজনের চেষ্টাও শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখেনি। তিন ম্যাচের প্রথম ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে শুরু করতে হয়েছে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে। অসিদের দেয়া ২৯৫ রানের জবাবে ইংল্যান্ড থামে ২৭৫ রানে। 

ম্যানচেস্টারে বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো ছিল না ইংল্যান্ডের। প্রথমেই তারা হারায় জ্যাসন রয়ের উইকেট। ৩ রান করে রয় ফিরেন জস হ্যাজলউডের শিকার হয়ে। দলীয় ১৩ রানে ফের ধাক্কা খায় ইংলিশরা। এবার জো রুটকেও ফিরিয়ে দেন হ্যাজলউড। মাত্র ১ রান আসে রুটের ব্যাট থেকে। বেয়ারস্টো ও অধিনায়ক ইয়ন মরগান চেষ্টা করেছিলেন হাল ধরার। তবে দলীয় ৫৫ রানে এ জুটি ভাঙেন জাম্পা। ২৩ রান করা মরগানকে ফেরান তিনি। মাত্র ১ রান করে সেই জাম্পার শিকার হয়ে ফেরেন জস বাটলারও। সেখান থেকে শুরু হয় বেয়ারস্টো ও বিলিংসের লড়াই। ইংলিশদের জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখে এ দুজন মিলে দলকে নিয়ে যান ১৭০ রানে। ৮৪ রান করা বেয়ারস্টোকে ফিরিয়ে অসিদের ম্যাচে ফেরান জাম্পা। বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি মঈন আলীও। মাত্র ৬ রান করে হ্যাজলউডের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। ১০ রান করে ক্রিস ওকস ফিরেন জাম্পার চতুর্থ শিকার হয়ে। ৫ রান করা আদিল রশিদ ফেরেন পেট কামিন্সের শিকার হয়ে। এরপর ইনিংস শেষ বলে আউট হওয়ার আগে বিলিংস করেন ১১০ বলে ১১৮ রান। ৫৫ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়েছেন জাম্পা, মাত্র ২৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছেন হ্যাজলউড। 

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪৩ রানের মাঝে ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চকে হারায় অস্ট্রেলিয়া। ৩৪ বলে ৪৩ রান করে আউট হন স্টোয়িনিস। তবে অস্ট্রেলিয়াকে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে নেন মিচেল মার্শ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ৭৩ রান করেন মার্শ। ৫৯ বলে ৭৭ রানের জড়ো ইনিংস খেলেন ম্যাক্সওয়েল। ম্যাচ সেরা হয়েছেন হ্যাজলউড।

সূত্র: ক্রিকইনফো

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন