শনিবার | সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০ | ৪ আশ্বিন ১৪২৭

খবর

গুরুতর অসুস্থ চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর, হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের আধুনিক চিত্রকলার অন্যতম পুরোধা ও ভাষাসংগ্রামী মুর্তজা বশীর গুরুতর অসুস্থ। তাকে রাজধানীর এভায়কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে মেডিক্যাল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (এমআইসিইউ) রাখা হয়েছে তাকে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে মুর্তজা বশীরকে হাসাপাতালে নেয়া হয়। তার বড় মেয়ে মুনীরা বশীর গণমাধ্যমকে জানান, তার বাবা হৃদরোগ, ফুসফুস ও কিডনি জটিলতায় ভুগছেন।  শিল্পীর সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে আজ শুক্রবার মুনীরা বশীর বলেন, সব ধরনের প্যাথলজিকাল পরীক্ষা হচ্ছে। তিনি চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। 

বহু ভাষাবিদ ডক্টর মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর ছোট ছেলে মুর্তজা বশীর। তার জন্ম ১৯৩২ সালের ১৭ আগস্ট। 

১৯৪৯ সালে ঢাকা গভর্নমেন্ট ইনস্টিটিউট অব আর্টস (বর্তমান চারুকলা ইনস্টিটিউট)-এ দ্বিতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থী হিসেবে মুর্তজা বশীর চারুকলা শিক্ষা শুরু করেন। ১৯৫৪ সালে পাঁচ বছর মেয়াদি শিল্প শিক্ষা শেষ করে প্রথম বিভাগে পাস করেন।

আর্ট স্কুল থেকে পাস করার পর ১৯৫৫ সালে বছর খানেক নবাবপুর সরকারি স্কুলে ড্রয়িং শিক্ষক হিসেবে কাজ করেন।

এরপর মুর্তজা বশীর উচ্চতর শিক্ষার জন্য ইতালীর ফ্লোরেন্সে যান। আকাদেমিয়া দ্য বেল্লি আর্টিতে এক বছর চিত্রকলা এবং আরেক বছর ফ্রেসকো নিয়ে পড়াশোনা করেন। ফ্লোরেন্সে রেনেসাঁর ঐতিহ্য তাকে প্রভাবিত করে। এ সময় অধ্যাপক কাপুকিনি ছিলেন তার শিক্ষক। তার কাজে ফিগারের সরলীকরণ ও ন্যূনতম রঙ ব্যবহারের শৈলী তাকে আকৃষ্ট করেছিল। ফ্লোরেন্সে তিনি পথে প্রান্তরে দেখা সাধারণ মানুষের ছবি এঁকেছেন। অ্যাকর্ডিয়ান বাদক, জিপসির খেলা দেখানো, মা ও মেয়ের বাজার করে ফেরার দৃশ্য এঁকেছেন তিনি।

ইতালিতে দু’বছর কাটিয়ে ১৯৫৮ সালের শেষদিকে তিনি লন্ডন হয়ে দেশে ফেরেন।

১৯৭৩ সালের আগস্টে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে যোগ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগে। চট্টগ্রামে তিনি ১৯৭৬ সালের মার্চের মধ্যে ‘এপিটাফ’ সিরিজে আরো ২০টি ছবি আকেঁন তিনি। ১৯৯৮ সালে অধ্যাপক হিসাবে অবসর নেন।

১৯৭৯ সালে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা উপন্যাস ‘আলট্রামেরিন’। টেরাকোটা, মুদ্রা ও শিলালিপি নিয়েও তিনি গবেষণা করেছেন।

বাংলাদেশের চিত্রকলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় ১৯৮০ সালে তিনি একুশে পদক পান। ২০১৯ সালে শিল্পী মুর্তজা বশীরকে স্বাধীনতা পদক দেয়া হয়। 

আগামী ১৭ আগস্ট ৮৯ বছরে পদার্পণ করবেন বরণ্যে চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন