বৃহস্পতিবার | অক্টোবর ০১, ২০২০ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

করোনা

ভ্যাকসিন ট্রায়ালে অংশ নিতে আগ্রহী হাজারো স্বেচ্ছাসেবক

বণিক বার্তা ডেস্ক

কভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন ট্রায়ালে সাহায্য করার সুযোগ পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত ডা. এরিক কোয়ে। এরিকের আহ্বানে সাড়া দিয়ে তার বান্ধবী, ছেলে পুত্রবধূও কর্মসূচিতে অংশ নেন। গত সপ্তাহে ফ্লোরিডার ক্লিনিক্যাল রিসার্চ সেন্টারে তারা সবাই ভ্যাকসিনের ডোজ নিয়েছেন।

এরিক বলেন, এটি করার পেছনে আমার মূল উদ্দেশ্য হলো, যাতে আমি পরিবার নাতি-নাতনিদের সঙ্গে আরো বেশি সময় কাটাতে পারি। তিনি জানান, গত মার্চ থেকে তিনি পরিজনকে দেখেছেন শুধু দূর থেকে।

৭৪ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত কার্ডিওলজিস্ট এরিক বলেন, ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার চেয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণে ঝুঁকি অনেক অনেক কম।

কভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন তৈরির দৌড়ে রয়েছে বেশ কয়েকটি দেশ প্রতিষ্ঠান। যুক্তরাষ্ট্রের দুটি প্রতিষ্ঠান ভ্যাকসিন উন্নয়নে অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তারা এখন শেষ পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে রয়েছে। এই ট্রায়ালেই স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে অংশ নিয়েছেন এরিক তার পরিবারের সদস্যরা। বৈশ্বিক মহামারীর সময় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভ্যাকসিন ট্রায়ালে অংশ নিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন এই সাবেক চিকিৎসক।

গত ২৭ জুলাই ট্রায়াল শুরু হয়েছে। ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারকরা আশাবাদী, আগামী দুই মাসে অন্তত ৬০ হাজার আমেরিকান স্বেচ্ছাসেবক জামার হাতা ভাঁজ করে ভ্যাকসিনের ডোজ নিয়ে ট্রায়ালে অংশগ্রহণ করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এগিয়ে থাকা দুটি ভ্যাকসিনের একটি তৈরি করছে জার্মান কোম্পানি ফাইজার বায়োএনটেক এবং অন্যটি তৈরি করছে বায়োটেক কোম্পানি মডার্না। বছরের শুরুর দিকে ছোট পরিসরের পরীক্ষায় দেখা গেছে প্রতিষেধকটি নিরাপদ এবং যারা এটি নিয়েছেন তাদের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। এখন চূড়ান্ত তৃতীয় পর্বের পরীক্ষায় দেখা হবে এই ভ্যাকসিন সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে পারে কিনা।

সচরাচর অন্য কোনো ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের চেয়ে কভিডের ভ্যাকসিন ট্রায়াল অনেক বেশি মানুষের মনোযোগ কেড়েছে বলে জানান আয়োজকরা।

এমনকি ভ্যাকসিনের দুই বছরের স্টাডি সম্পন্ন হলে স্বেচ্ছাসেবকদের প্রত্যেকে ন্যূনতম হাজার ডলার করে পাবেন।

এত বিপুলসংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক ট্রায়ালে অংশ নেবেন তো? এমনটি শঙ্কা ছিল অনেকের। যদিও সেই শঙ্কা কেটে যাচ্ছে। নর্থ ক্যারোলাইনার ছয়টি জায়গায় ভ্যাকসিন ট্রায়াল পরিচালনা করছে এম৩-ওয়েক রিসার্চ। এর সিইও . এলা গ্রাচ বলেন, আমাদের স্বেচ্ছাসেবকের কোনো ঘাটতি নেই এবং হাজার হাজার মানুষ এতে অংশ নিতে আগ্রহী।

নর্থ ক্যারোলাইনার ডামহামভিত্তিক ভেলোসিটি ক্লিনিক্যাল রিসার্চের প্রেসিডেন্ট পল ইভান্স জানান, কভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য সাতটি রাজ্য থেকে ১০ হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করবে তার কোম্পানি। ওহাইও, ক্যালিফোর্নিয়া অরেগনে ভেলোসিটির অন্তত চারটি কেন্দ্রে এরই মধ্যে স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে মডার্নার ভ্যাকসিন ডোজ দেয়া শুরু হয়েছে।

সায়েন্টিফিক আমেরিকান

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন