বুধবার | সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০ | ৮ আশ্বিন ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

বৈশ্বিক ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে শীর্ষ চারে ভিভো

বণিক বার্তা ডেস্ক

বৈশ্বিক ফাইভজি স্মার্টফোনের বাজার বড় হচ্ছে। ক্রমবর্ধমান বাজারটিতে স্মার্টফোন উৎপাদন, বিক্রি বাজার দখলে স্যামসাংয়ের পরই জায়গা করে নিয়েছে চীনভিত্তিক ডিভাইস নির্মাতা ভিভো। অর্থাৎ ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে স্যামসাংয়ের পরের অবস্থানেই রয়েছে ভিভো। বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ট্রেন্ডফোর্সের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই উঠে এসেছে। খবর নিউজ আওয়ার।

বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে ভালো করছে ভিভো। চলতি বছরের শুরু থেকে স্মার্টফোন উৎপাদন, বিক্রি বাজার দখলে অগ্রগতি অর্জন করে আসছে চীনা ব্র্যান্ডটি। চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) ভারতী স্মার্টফোন বাজারে স্যামসাংকে পেছনে ফেলে ভিভো। এবার ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারেও অন্যতম প্রতিষ্ঠান হিসেবে নাম লিখিয়েছে চীনা ডিভাইস ব্র্যান্ড।

ট্রেন্ডফোর্সের প্রতিবেদনটি অনুযায়ী, ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে শীর্ষ অবস্থানে আছে চীনভিত্তিক ডিভাইস নির্মাতা হুয়াওয়ে। বাজারটিতে দ্বিতীয় তৃতীয় অবস্থানে আছে যথাক্রমে অ্যাপল স্যামসাং। বৈশ্বিক ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে হুয়াওয়ের দখল ৩১ শতাংশে পৌঁছেছে। অন্যদিকে বাজারটির যথাক্রমে ৩০ শতাংশ ১২ শতাংশ দখলে নিয়েছে অ্যাপল স্যামসাং। বাজারটির শতাংশ দখলে নিয়ে তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে আছে ভিভো। অন্যদিকে শতাংশ বাজার দখল নিয়ে তালিকায় ভিভোর পরে রয়েছে যথাক্রমে অপো শাওমি।

চলতি বছর কোটি ৪০ লাখ ইউনিট ফাইভজি স্মার্টফোন উৎপাদনের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে হুয়াওয়ে। অন্যদিকে অ্যাপল স্যামসাং যথাক্রমে কোটি কোটি ৯০ লাখ ইউনিট ফাইভজি স্মার্টফোন উৎপাদনের লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে। ভিভো চলতি বছরজুড়ে কোটি ১০ লাখ ইউনিট স্মার্টফোন উৎপাদন করবে। চীনা দুই ডিভাইস ব্র্যান্ড অপো শাওমি চলতি বছর যথাক্রমে কোটি কোটি ৯০ লাখ ইউনিট স্মার্টফোনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।

ট্রেন্ডফোর্সের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ২০২৫ সালের মধ্যেই বিশ্বের ৫০ শতাংশ ফাইভজি মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে। তবে চলমান কভিড-১৯ মহামারীর কারণে প্রক্রিয়া কিছুটা দীর্ঘায়িত হওয়ার আশঙ্কাও তৈরি হয়েছে। ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে প্রতিযোগিতা চালিয়ে যাচ্ছে স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো। চলতি বছর শেষ নাগাদ বৈশ্বিক ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারের শীর্ষ ছয়টি ডিভাইস ব্র্যান্ডের মধ্যে চারটিই থাকবে চীনভিত্তিক।

বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজার কভিড-১৯ মহামারীর কারণে স্মরণকালের সংকটপূর্ণ সময় পার করছে। ভয়াবহ পরিস্থিতিতেও চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারের শীর্ষ পাঁচ ডিভাইস ব্র্যান্ড তালিকায় নাম লেখাতে সক্ষম হয়েছিল ভিভো। চলমান মহামারীর প্রাদুর্ভাবে বৈশ্বিক অর্থনীতি স্থবির হয়ে পড়েছে। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া মহামারীর কারণে অন্যান্য খাতের মতো স্মার্টফোন বাজারেও ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এক বছর আগের একই প্রান্তিকের চেয়ে সরবরাহ কমেছে ১১ দশমিক শতাংশ। বাজারটির ২১ দশমিক , ১৭ দশমিক ১৩ দশমিক শতাংশ দখলে নিয়ে প্রথম, দ্বিতীয় তৃতীয় অবস্থান ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে যথাক্রমে স্যামসাং, হুয়াওয়ে অ্যাপল। বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারের ১০ দশমিক শতাংশ দখলে নিয়ে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে শাওমি। সামগ্রিকভাবে স্মার্টফোন বাজারের শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষ পাঁচে জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছে ভিভো। জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে ডিভাইস সরবরাহে বার্ষিক শতাংশ প্রবৃদ্ধির মুখ দেখেছে ভিভো, যা প্রান্তিকটিতে শীর্ষ চার ব্র্যান্ডের তুলনায় বেশি। অন্যদিকে ফাইভজি স্মার্টফোন বাজারে তৃতীয় অবস্থানে ছিল ভিভো।

বৈশ্বিক বাজারে শীর্ষ পাঁচ নম্বরে থাকলেও বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ স্মার্টফোন বাজার ভারতে স্যামসাংকে পেছনে ফেলেছে ভিভো। জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে ক্রমবর্ধমান বাজারটিতে স্মার্টফোন বিক্রি বিবেচনায় স্যামসাংকে টপকে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে ভিভো। টানা কয়েক প্রান্তিকের মতো ভারতের স্মার্টফোন বাজারে শীর্ষ অবস্থান দখলে রাখতে সক্ষম হয়েছে শাওমি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন