সোমবার | সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ | ৬ আশ্বিন ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

বিরোধপূর্ণ এলাকা জুড়ে দিয়ে এবার পাকিস্তানের নতুন মানচিত্র প্রকাশ

বণিক বার্তা অনলাইন

নেপালের পর ভারতের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ বেশ কিছু অঞ্চলকে রাজনৈতিক মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করল পাকিস্তান। দেশটির মন্ত্রিসভা এরই মধ্যে এ মানচিত্র অনুমোদনও। 

অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীর এবং সীমান্তে গুজরাত রাজ্যকে বিভক্তকারী স্যার ক্রিক অঞ্চল নতুন মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করেছে পাকিস্তান।

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করে ভারতের সংবিধানের ৩৭০ ও ৩৫এ অনুচ্ছেদ ধারা বাতিল করার ঘোষণার বর্ষপূর্তির ঠিক এক দিন আগে নতুন মানচিত্র উন্মোচন করল পাকিস্তান। 

এ ব্যাপারে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, এই মানচিত্র প্রত্যেক নাগরিক এবং কাশ্মীরের মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক। কাশ্মীর বিরোধ প্রশ্নে আমাদের অবস্থানের পক্ষে সমর্থন। এখন থেকে পাকিস্তান সরকারিভাবে এই মানচিত্রই ব্যবহার করবে। 

জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখকে বিশেষ মর্যাদা দেয়া সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে গত বছরের ৩১ অক্টোবর নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে ভারত সরকার। এই অঞ্চলকে ভারতের ইউনিয়ন টেরিটোরি (কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল) হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। ভারতের নতুন মানচিত্রে দাবি করা হয়েছে, পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মীর ও গিলগিট বালতিস্তানসহ বিরোধপূর্ণ এলাকা ভারতীয় ভূখণ্ডেরই অংশ।

তবে ভারতের এই মানচিত্র চীন, পাকিস্তান ও নেপাল প্রত্যাখ্যান করেছে। 

এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেছেন, আমরা পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রকাশিত তথাকথিত রাজনৈতিক মানচিত্রটি দেখেছি। গুজরাত ও জম্মু-কাশ্মীরের ভূখণ্ডের ওপরে এই পাক দাবি সে দেশের অবাস্তব রাজনৈতিক চিন্তারই প্রতিফলন। এর না আছে আইনি বৈধতা, না আছে আন্তর্জাতিক গ্রহণযোগ্যতা। বোঝাই যাচ্ছে পাকিস্তান ভূখণ্ড দখলের জন্যই সন্ত্রাসে মদত দেয়।

সূত্র: ডন ও এনডিটিভি

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন