রবিবার | আগস্ট ০৯, ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

হংকংয়ের ছয় গণতন্ত্রপন্থী কর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

বণিক বার্তা ডেস্ক

অন্যদেশে পালিয়ে যাওয়া ছয় গণতন্ত্রপন্থী কর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে হংকং কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি জারিকৃত জাতীয় নিরাপত্তা আইন ভঙ্গের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি করা হয় বলে জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। এ ছয়জন হলেন নাথান ল, ওয়েইন চ্যান কা-কুই, হনকুয়েস লাউস, স্যামেুয়েল চু, সাইমন চেং এবং রে ওং।  খবর রয়টার্স।

ওং জানান, গ্রেফতারের এ উদ্যোগই প্রমাণ করে দেয় যে, চীনা সরকার আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী কর্মীদের কার্যক্রম ভয় পায়। ফলে দেশটির কর্তৃপক্ষ তাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইছে। রয়টার্সকে তিনি আরো বলেন, আমার ধারণা তারা হংকংয়ের জনগণের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ ছিন্ন করতে চাইছে। তারা মনে করছে, এর ফলে মানুষজন আমাদের সঙ্গে যোগাযোগে ভয় পাবে। কারণ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ নিরাপত্তা আইন ভঙ্গের সামিল বলে বিবেচিত হতে পারে।

এদিকে বর্তমানে যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত নাথান ল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে বলেন, গ্রেফতারি পরোয়ানা, সাম্প্রতিক সময়ের ধরপাকড় এবং পিছিয়ে দেয়া নির্বাচন থেকে গণতন্ত্রপন্থী কর্মীদের ঢালওভাবে অযোগ্য ঘোষণা করাই প্রমাণ করে যে, বৈশ্বিক পর্যায়ে আমাদেরকে সক্রিয় থাকতে হবে।

প্রায় একমাস আগে চীন হংকংয়ের ওপর বিতর্কিত নিরাপত্তা আইন চাপিয়ে দেয়। আইনটি নগররাষ্ট্রটির গণতন্ত্রপন্থীদের পাশপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশের পশ্চিমা দেশগুলোর ব্যাপক সমালোচনার শিকার হয়। এরই মধ্যে এ আইন জারির জেরে বেশ কিছু দেশ হংকংয়ের সঙ্গে প্রত্যর্পণ চুক্তি বাতিল করেছে। এর মধ্যে অন্যতম হলেঅ ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া ও সর্বশেষ জার্মানি। এ চুক্তি বাতিল বিদেশে অবস্থানরত গণতন্ত্রপন্থীদের রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করতে পারে।

ওয়েইন চ্যান বলেন, আমি যে পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছি, হংকংয়ের বাসিন্দারা তার চেয়েও বাজে পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে বলে আমি করি। এ অবস্থায় আমি আমার নিজের নিরাপত্তা নিয়ে খুব বেশি ভাবতে পারছি না। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন