রবিবার | আগস্ট ০৯, ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

খবর

কভিড-১৯

দেশে আরো ২১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত শনাক্ত ২১৯৯

বণিক বার্তা অনলাইন

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটির সংক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ৩ হাজার ১৩২ জনে। এছাড়া একই সময়ে নতুন করে ২ হাজার ১৯৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সর্বমোট ২ লাখ ৩৯ হাজার ৮৬০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হল। 

আজ শনিবার (১ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন হেলথ বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

দেশের ৮২টি ল্যাবের তথ্য তুলে ধরে নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ৮ হাজার ৬৬৯টি। আগের কিছু নমুনাসহ পরীক্ষা হয়েছে ৮ হাজার ৮০২টি। এ নিয়ে দেশে মোট ১১ লাখ ৮৫ হাজার ৬১১টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো। 

এছাড়া একদিনে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ১১৭ জন। এ নিয়ে মোট এক লাখ ৩৬ হাজার ২৫৩ জন রোগী সুস্থ হলেন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৬ দশমিক ৮১ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ২৩ শতাংশ। তবে দেশে শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩১ শতাংশ।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ২১ জনের মধ্যে পুরুষ ১৬ জন ও নারী পাঁচজন। এ পর্যন্ত পুরুষ মারা গেছেন ২৬৬২ জন, যা শতাংশের হিসাবে ৭৮ দশমিক ৬১ শতাংশ এবং নারী মারা গেছেন ৬৭০ জন, শতাংশের হিসাবে ২১ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে তিনি জানান, মৃতদের মধ্যে ১১ থেকে ২০ বছর বয়সীদের মধ্যে রয়েছেন দুজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের একজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের চারজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের আটজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের পাঁচজন এব ৮১ থেকে ৯০ বছর বয়সসীমার রয়েছেন একজন।

বিভাগভিত্তিক বিশ্লেষণে তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের রয়েছেন নয়জন, চট্টগ্রাম বিভাগের তিনজন, খুলনায় পাঁচজন, রাজশাহীর একজ, বরিশালে দুজন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে রয়েছেন। 

গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস এখন বৈশ্বিক মহামারীতে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। সেদিন তিনজন আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার কথা জানায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। এরপর মার্চ মাস শেষে ৫০ জনের মতো শনাক্তের কথা জানা গেলেও এপ্রিল মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে খুব দ্রুত।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন