মঙ্গলবার | আগস্ট ১১, ২০২০ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭

দেশের খবর

নেত্রকোনায় পানিবন্দি লক্ষাধিক মানুষ

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, নেত্রকোনা

অব্যাহত বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে নেত্রকোনায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। জেলার ৬ উপজেলায় পানি বন্দি হয়ে আছে লক্ষাধিক মানুষ। কলমাকান্দা ও খালিয়াজুরী উপজেলায় বন্যাদূর্গতদের বাড়ী ঘর তলিয়ে যাওয়ায় বেশ কিছু পরিবার আশ্রয় নিয়েছে সরকারি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে।

গত কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও ঢলের কারণে জেলার দুর্গাপুর, কলমাকান্দা, বারহাট্টা ও মদন উপজেলায় পুনরায় বন্যা দেখা দিয়েছে। বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় নতুন করে প্লাবিত হয়েছে নেত্রকোনা সদর উপজেলার কালিয়ারা-গাবরাগাতি ইউনিয়নের সবকটি গ্রাম। এছাড়া প্লাবিত হয়েছে খালিয়াজুরী উপজেলার বেশ কিছু এলাকা। 

গত বৃহস্পতিবার থেকে নেত্রকোনায় ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পাহাড়ি ঢলের পানি নেমে আসায় নেত্রকোনার প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি এখনো বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানিবন্দি হয়ে আছে ৬ উপজেলার ৩০টি ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ।

পানিতে তলিয়ে গেছে বেশিরভাগ গ্রামীণ সড়ক। ফলে গ্রামাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা একবারে ভেঙে পড়েছে। বয়স্ক ও শিশুদের নিয়ে চরম উদ্বেগ উৎকণ্ঠার মধ্যে রয়েছেন পানিবন্দি পরিবারগুলো। বন্যার পানিতে অসংখ্য পুকুর তলিয়ে যাওয়ায় বিপুল পরিমান মাছ ভেসে গেছে। বন্যার পানিতে আমন ধানের বীজতলা নষ্ট হয়ে গেছে। সাধারণ মানুষ নৌকা ও কলার ভেলা তৈরি করে প্রয়োজনীয় কাজ সেরে নেয়ার চেষ্টা করছে।

দুর্গাপুর,কলমাকান্দা,মদন গুচ্ছগ্রাম ও খালিয়াজুরী এলাকায় বন্যাদূর্গতদের মাঝে উপজেলা প্রশাসন থেকে শুকনা খাবারের পেকেট বিতরণ করা হয়েছে।

নেত্রকোনা সদর উপজেলার কালিয়ারা-গাবরাগাতী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলী আজগর খান পাঠান শারিফ বলেন, ইউনিয়নের ২৫টি গ্রামের সবকটি গ্রামই বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। ডুবে গেছে শতাধিক মাছের ঘের। তলিয়ে গেছে রাস্তা ঘাট সবজি ক্ষেত, বীজতলা। পানিবন্দি হয়ে আছে এলাকার মানুষ।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন