শনিবার | আগস্ট ১৫, ২০২০ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আন্দ্রেজ দুদার জয়

বণিক বার্তা ডেস্ক

পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন আন্দ্রেজ দুদা। সবকিছু ঠিক থাকলে দ্বিতীয়বারের মতো দেশটির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন তিনি। দুদা এক্ষেত্রে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাস্কোওস্কিকে খুব সামান্য ব্যবধানে হারিয়েছেন। পোল্যান্ডের জাতীয় নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, দুদা পেয়েছেন মোট ভোটের ৫১ শতাংশ। ১৯৮৯ সালে পোল্যান্ডে কমিউনিজমের পতনের পর এত কম ব্যবধানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হওয়ার নজির নেই। আর নির্বাচনের অন্যতম প্রধান গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে দেশটির সংকটপূর্ণ সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ। খবর বিবিসি।

সোস্যাল কনজারভেটিভ দুদা সরকার গঠনে ন্যাশনালিস্ট অ্যান্ড জাস্টিস (পিআইএস) পার্টির সঙ্গে জোট বেঁধেছিলেন। অন্যদিকে ট্রাস্কোওস্কি হলেন ওয়ারসর উদারপন্থী মেয়র। মতাদর্শের দিক থেকে উভয়ের মধ্যে বিস্তর পার্থক্য বিদ্যমান। দুদার জয়ে নিশ্চিতভাবেই দেশটির বিচার বিভাগের বিতর্কিত সংস্কার জারি থাকবে। প্রচারের সময়ই দুদা এলজিবিটি অধিকারকে কমিউনিজমের থেকেও ধ্বংসাত্মক মতাদর্শ বলে অভিহিত করে ব্যাপক সমালোচনার শিকার হন। তবে শেষ পর্যন্ত সব বিতর্ক পেছনে রেখে তিনিই বিজয়ী হলেন।

স্থানীয় সময় সোমবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন কমিশনের প্রধানরা বলেছিলেন, ভোটের পূর্ণ ফল কখন পাওয়া যাবে এবং ঘোষণা করা হবে সে বিষয়ে তারা নিশ্চিত নন। কারণ তখন পর্যন্ত বেশকিছু ভোটকেন্দ্র থেকে গণনার ফল পাওয়া যাচ্ছিল না। এদিকে ট্রাস্কোওস্কিকে সমর্থনকারী দি অপজিশন সিভিক প্লাটফর্ম (পিও) গ্রুপ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় রোববার ভোটগ্রহণ বন্ধ হওয়ার পর তারা বিভিন্ন স্থান থেকে অনিয়মের তথ্য পাচ্ছিলেন। এর মধ্যে অনেক স্থানে ভোট গ্রহণের সরঞ্জাম যথাসময়ে না পৌঁছানোরও অভিযোগ পাওয়া গেছে। অবস্থায় বিশ্লেষকরা মনে করছেন, ভোটের ফলে উভয়ের মধ্যে ব্যবধান খুব কম হওয়ায় এখানে আইনি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

ওয়ারস বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানী আনা মাটেরস্কা-সোস্নোওস্কা বলেন, আমার মনে হয় নিশ্চিতভাবেই নির্বাচন নিয়ে আন্দোলন শুরু হবে, যা শেষ পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে দাঁড়াতে পারে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন

×