বৃহস্পতিবার | আগস্ট ০৬, ২০২০ | ২১ শ্রাবণ ১৪২৭

খবর

ডিএনসিসির ২৮৭ বাড়ীতে এডিস মশার লার্ভা, জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩৯টি ওয়ার্ডে ২৮৭ বাড়ীতে এডিস মশার লার্ভা ধ্বংস করা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ এবং সিটি কর্পোরেশনের এক যৌথ কর্মসূচিতে এসব বাড়ির মালিক বা নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাও করা হয়েছে। 

আজ রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত-মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানিয়েছেন। 

তিনি বলেন, মৌসুম-পূর্ব এডিস সার্ভে ২০২০ পরবর্তী মনিটরিং কার্যক্রমের (২য় পর্যায়) অংশ হিসেবে এই কমসূচি পারিচালিত হয়েছে। আগামীতেও সিটি কর্পোরেশনের সাথে যৌথভাবে ধরনের অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান এই কর্মকর্তা। এই কার্যক্রমে জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ১৫টি টিম কাজ করছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি জানান, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ০১, ০২, ০৩, ০৪, ০৫, ০৭ ও ১০ নং জোনের সর্বমোট ৩৯ টি ওয়ার্ডে (০১-৩৮ ও ৫০ নং) কার্যক্রমটি পরিচালিত হয়। এর মধ্যে ওয়ার্ডগুলোতে পরিদর্শণকৃত ২,৬৪৯টি বাড়ির মাধ্যে মধ্যে ২৮৭টি বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা ও পিউপারের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। যা হাউজ ইনডেক্সে ১০ দশমিক ৮৩ শতাংশ বলে জানান তিনি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, অভিযান পরিচালনাকালে এডিস মশার লার্ভা ও পিউপার উপস্থিতি পাওয়ার জন্য নির্মাণাধীন ভবন ও শিল্প প্রতিষ্ঠানকে টিমের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বাধীন দল ৯ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা জারিমানা করেন। মনিটরিং টিমের কর্মকর্তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে এডিস মশার সম্ভাব্য প্রজননস্থল পরিদর্শন করে এই অভিযান পরিচালনা করে। 

এসময় মশার সম্ভাব্য প্রজননস্থলে কীটনাশক স্প্রে করা হয়। এবং নির্মূলযোগ্য উৎসসমূহ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মীদের সহযোগিতায় ধ্বংস করা হয় বলে জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এদিকে কোথাও যেন পানি জমা না হয়ে থাকে এ ব্যাপারে সজাগ থেকে করোনা পরিস্থিতির সঙ্গে বর্তমান মৌসুমে মশাবাহিত ডেঙ্গু, চিকনগুনিয়া ও ম্যালেরিয়ার মতো রোগ প্রতিরোধে সতর্ক থাকার জন্য আহ্বান জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন