শুক্রবার | আগস্ট ০৭, ২০২০ | ২২ শ্রাবণ ১৪২৭

দেশের খবর

গাংনীতে দুই দপ্তরের কাছে পবিসের পাওনা ২৬ লাখ টাকা

বণিক বার্তা প্রতিনিধি মেহেরপুর

গাংনী পৌরসভা উপজেলা পরিষদের ২৬ লাখ টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। বিদ্যুৎ বিভাগ বারবার তাগিদ দিলেও বিল পরিশোধ করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এতে কর্মচারীদের বেতন প্রদানে হিমশিম খাচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি (পবিস)

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস (মেইন মিটার) ১৯৯৮ সাল থেকে চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত বকেয়া ১৩ লাখ ৭১ হাজার ৯১৬ টাকা, অফিস ভবন ২০১৮ সাল থেকে চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত লাখ ৩৮ হাজার ৬৪৩ টাকা, আবাসিক ভবনে ৫৪ হাজার ৭২৭ টাকা, পানির পাম্প ৩৬ হাজার ৭৩৩ টাকা রাস্তার বাতির মিটারে ১০ হাজার ৪৯৫ টাকাসহ মোট ১৬ লাখ ১২ হাজার ৫১৪ টাকা বকেয়া পড়েছে। প্রতি মাসে বিল পরিশোধ কয়েক মাস পরপর বিল পরিশোধের তাগিদ দেয়া হলেও কোনো সদুত্তর পাওয়া যায় না।

এদিকে গাংনী পৌরসভার বিভিন্ন সময়ে বকেয়া পড়েছে ১০ লাখ ৩৩ হাজার ৬৯ টাকা। বিভিন্ন সময়ে মেয়ররা দায়িত্বে থাকলেও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করেননি। বারবার চিঠি দিয়েও বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ না করায় সমস্যা দেখা দিয়েছে।

মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির গাংনী জোনাল অফিসের ডিজিএম নিরাপদ দাস জানান, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের কাছ থেকে নগদ টাকায় বিদ্যুৎ ক্রয় করে খুচরা পর্যায়ে বিক্রি করে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি। অথচ সরকারি অফিস বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করছে না। এতে কর্মচারীদের বেতন প্রদান ছাড়াও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের পাওনা পরিশোধে হিমশিম খেতে হচ্ছে। বারবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিল পরিশোধের জন্য তাগিদ দিলেও কোনো কাজ হচ্ছে না। গুরুত্বপূর্ণ দুটি দপ্তর হওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করাও যাচ্ছে না।

গাংনী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরএম সেলিম শাহনেওয়াজ জানান, বিভিন্ন সময়ে বিল পরিশোধ না করায় এমনটি হয়েছে। ফাইলপত্র দেখে বিল পরিশোধের ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে গাংনী পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম জানান, গত জানুয়ারিতে ১০ লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। আরো বিল বাকি পড়েছে। পৌরকর আদায় সাপেক্ষে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা হয়। কিন্তু গাংনী উপজেলা পরিষদ গত দুই বছর কোনো কর প্রদান করেনি, তাই বিদ্যুৎ বিল পরিশোধে বিলম্ব হচ্ছে। তাছাড়া গাংনী শহর আলোকিতকরণসহ বিভিন্ন সেবামূলককাজে বিদ্যুৎ ব্যবহার হওয়ায় আমাদের বিদ্যুৎ বিল বেশি উঠে। খুব তাড়াতাড়ি বিল পরিশোধ করা হবে বলে আশ্বাস দেন। মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার নুর মোহাম্মদ জানান, গাংনীতে বিদ্যুৎ বিল বাকি রয়েছে উপজেলা পৌরসভায়। ফলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া কঠিন। তবে আলোচনা চলছে খুব অল্প সময়ে সমাধান হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন