বৃহস্পতিবার | আগস্ট ১৩, ২০২০ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

সিউলের নিখোঁজ মেয়রের মরদেহ পেল পুলিশ

বণিক বার্তা অনলাইন

হঠাৎ করে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের মেয়র পার্ক ওন-সুনের মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৯ জুন) মেয়রের মেয়ে বাবার নিখোঁজ হওয়ার খবর দিলে ব্যাপক তল্লাশি শুরু করে পুলিশ। অবশেষে তার মৃতদেহ শহর সংলগ্ন এক পাহাড়ে পাওয়া গেল।

টানা সাত ঘণ্টার অপারেশন শেষে স্থানীয় সময় শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে সিউল পুলিশ সাংবাদিকদের সেলফোনে এসএমএস দিয়ে এ তথ্য জানায়।

এর আগে সিউল মেট্রোপলিটন পুলিশ সংস্থা জানিয়েছিল, সিউলের উত্তরে অবস্থিত সুংবুক-ডং জেলার আশপাশে মেয়রের খোঁজ করছেন কর্মকর্তারা। সবশেষ সেখানেই তার ফোন সিগন্যাল পাওয়া গিয়েছিল।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকাল ৫ টা ১৭ মিনিটে মেয়রের মেয়ে পুলিশকে নিখোঁজ সংবাদ জানিয়ে বলেন, তার বাবার ফোন বন্ধ পাচ্ছেন তিনি।

৬৪ বছর বয়সী পার্ক ওন-সুন, দক্ষিণ কোরিয়ায় দীর্ঘদিনের নাগরিক আন্দোলনের মুখ তিনি। ২০১১ সালে তিনি রাজধানী সিউলের মেয়র নির্বাচিত হন। দক্ষিণ কোরিয়ার উদারপন্থিরা তাকে ২০২২ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাচ্ছিলেন। 

এক দশক আগে পার্ক ওন সুন যখন ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়ে ভূমিধস বিজয় ছিনিয়ে নেন, সেটি ছিল সবার কাছে এক আশ্চর্য ঘটনা। অথচ এর আগে তার কোনো রাজনীতি সংশ্লিষ্টতা বা অভিজ্ঞতা কোনোটাই ছিল না। দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর পদটিতে তার মতো মানুষ অধিষ্ঠিত হওয়ার ঘটনায় অনেক বিশ্লেষকই বলেছিলেন, দক্ষিণ কোরিয়ার মানুষ দেশের প্রচলিত পুরনো রাজনীতি নিয়ে ক্লান্ত। তারা নতুন কিছু চাইছেন।

সাবেক এই মানবাধিকার আইনজীবী মেয়র নির্বাচন করেছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে। তবে পরে বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে ঐক্য গড়েন। সিউলের ব্যাপক উন্নয়ন ও নাগরিকদের কল্যাণে বহু সফল প্রকল্পের জনক তিনি। তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার রাজনীতির সংস্কারের এক প্রতীকে পরিণত হয়েছিলেন। পার্ক ২০১৪ এবং ২০১৮ সালে যথাক্রমে টানা দ্বিতীয় ও তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হন।

সূত্র: সিএনএন

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন