বৃহস্পতিবার | আগস্ট ০৬, ২০২০ | ২২ শ্রাবণ ১৪২৭

খবর

ভুয়া রিপোর্টসহ নানা অনিয়ম

র‌্যাবের অভিযানে রিজেন্ট হাসপাতালের ব্যবস্থাপক আটক

বণিক বার্তা অনলাইন

করোনা রোগীদের কাছ থেকে বিল আদায়, করোনা পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট তৈরিসহ নানা অভিযোগে উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। অভিযানে এসব অভিযোগের সপক্ষে তথ্যপ্রমাণ পাওয়ায় হাসপাতালটির ব্যবস্থাপকসহ ৮ জনকে আটক করা হয়েছে। তবে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মো. শাহেদ পলাতক।

আজ সোমবার দুপুরের পর থেকে উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর সড়কের ওই হাসপাতালে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এতে নেতৃত্ব দেন র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার আলম। সন্ধ্যার পর তিনি সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তিন ধরনের অভিযোগ ও অপরাধের প্রমাণ পেয়েছেন তারা। প্রথমত, তারা করোনার নমুনা পরীক্ষা না করে ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করত। এ ধরনের ১৪টি অভিযোগ র‌্যাবের কাছে জমা পড়ে, যার পরিপ্রেক্ষিতে এই অভিযান।

দ্বিতীয়ত, হাসপাতালটির সঙ্গে সরকারের চুক্তি ছিল ভর্তি রোগীদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা দেয়ার। সরকার এই ব্যয় বহন করবে। কিন্তু তারা রোগীপ্রতি লক্ষাধিক টাকা বিল আদায় করেছে। পাশাপাশি রোগীদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা দিয়েছে এই মর্মে সরকারের কাছে ১ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বেশি বিল জমা দেয়। রিজেন্ট হাসপাতাল এ পর্যন্ত প্রায় দুশ কভিড-১৯ রোগীর চিকিৎসা দিয়েছে বলেও জানান সারোয়ার আলম।

ব্রিফিং আরো জানানো হয়, রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সরকারের সঙ্গে চুক্তি ছিল ভর্তি রোগীদের তারা কভিড পরীক্ষা করবে বিনা মূল্যে। কিন্তু তারা আইইডিসিআর, আইটিএইচ ও নিপসম থেকে ৪ হাজার ২০০ রোগীর বিনা মূল্যে নমুনা পরীক্ষা করিয়ে এনেছে। পাশাপাশি নমুনা পরীক্ষা না করেই আরও তিন গুণ লোকের ভুয়া করোনা রিপোর্ট তৈরি করেছে।

২০১৪ সালে মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর আর লাইসেন্সও নবায়ন করেনি এ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপরও কীভাবে সরকার এই হাসপাতালের সঙ্গে কভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা চুক্তিতে গেল, তা খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন