বুধবার | জানুয়ারি ২৭, ২০২১ | ১৪ মাঘ ১৪২৭

পণ্যবাজার

জার্মানির পার্লামেন্টে কয়লা ব্যবহার বন্ধের বিল পাস

বণিক বার্তা ডেস্ক

কয়লা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে জার্মানি। জার্মান সংসদের নিম্নকক্ষে বিদ্যুৎ উৎপাদন খাতে ২০৩৮ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে কয়লার ব্যবহার বন্ধ করার বিষয়ে একটি বিল পাস করা হয়েছে। পরিবেশ দূষণ কমিয়ে আনার লক্ষ্যে দেশটি দীর্ঘদিন ধরে কয়লার ব্যবহার কমিয়ে আনতে কাজ করে যাচ্ছে। খবর রয়টার্স।

পরিবেশ ইস্যুতে জার্মানি বরাবরই নবায়নযোগ্য শক্তির ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে। এর পাশাপাশি ক্লিন এনার্জি খ্যাত প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহারও বাড়াচ্ছে দেশটি। কয়লা থেকে নবায়নযোগ্য শক্তিতে রূপান্তরের লক্ষ্যে কয়লা খনি এবং বিদ্যুৎকেন্দ্রের অপারেটরদের জন্য সদ্য পাস হওয়া বিলটিতে হাজার ৬০০ কোটি ইউরো (স্থানীয় মুদ্রা) অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট খাতের সঙ্গে জড়িত এলাকা কর্মচারীদের নিরাপত্তার স্বার্থে অর্থ অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

জার্মানির অর্থ জ্বালানিবিষয়ক মন্ত্রী পিটার আলটমায়ার বিলটির প্রশংসা করেছেন। এটাকে তিনি ইতিহাসে জার্মানির গুরুত্বপূর্ণ অর্জন বলে অভিহিত করেছেন। পার্লামেন্টে তিনি বলেন, এটা জীবাশ্ম জ্বালানির শেষ সময়ের শুরু। জার্মানি ২০২২ সালের মধ্যে পারমাণবিক শক্তি এবং ২০৩৮ সালের মধ্যে কয়লা ব্যবহার পরিত্যাগ করার লক্ষ্য হাতে নিয়েছে। এর মাধ্যমে ২০৩০ সালের মধ্যে গ্রিন হাউজ গ্যাস নিঃসরণ বর্তমানের তুলনায় ৫৫ শতাংশ কমিয়ে নব্বইয়ের দশকের পর্যায়ে নামিয়ে আনার প্রত্যাশা রয়েছে দেশটির।

এছাড়া স্থানীয় ইউটিলিটি গ্রুপ, শ্রমিক ইউনিয়ন এবং জ্বালানি ভোক্তারা চুক্তিটিকে স্বাগত জানিয়েছেন। কারণ জ্বালানি রূপান্তর মোকাবেলায় বিলটি তাদের সময় অর্থের

সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তবে পরিবেশবাদীরা দাবি করেছেন, বিলটি পাস হতে দীর্ঘ সময় লেগেছে এবং করদাতাদের জন্য বিলটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল।

এর আগে বেশ কয়েকটি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করে দিয়েছে জার্মানি। আন্তর্জাতিক বাজার থেকে কয়লার পরিবর্তে প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানি বাড়িয়েছে। চলতি বছরের প্রথমার্ধে (জানুয়ারি-জুন) দেশটির বিদ্যুৎ উৎপাদনে নবায়নযোগ্য শক্তির হিস্যা বেড়ে ৫০ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে দেশটি মোট হাজার ৯৩০ কোটি ঘনমিটার প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানি করেছে, আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় যা দশমিক শতাংশ বেশি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন