শুক্রবার | আগস্ট ০৭, ২০২০ | ২২ শ্রাবণ ১৪২৭

পণ্যবাজার

২০১৯-২০ মৌসুম

২ কোটি ৫ লাখ টন গম রফতানি ইউক্রেনের

বণিক বার্তা ডেস্ক

শস্য রফতানির আন্তর্জাতিক বাজারে ইউক্রেনের পোক্ত অবস্থান রয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) শস্যভাণ্ডার বলা হয় দেশটিকে বিদায়ী মৌসুমে রেকর্ড শস্য রফতানি করেছে দেশটি মৌসুমের কয়েক মাস হাতে থাকতেই আগের রেকর্ড ভেঙেছে দেশটি নভেল করোনাভাইরাসের মহামারীকালে নানা ধরনের চড়াই-উতরাই পার হয়ে মৌসুম শেষে দেশটি কোটি লাখ টন গম রফতানি করেছে দেশটির সরকারি সূত্র সম্প্রতি তথ্য জানিয়েছে খবর বিজনেস রেকর্ডার ওয়ার্ল্ডগ্রেইনডটকম

ইউক্রেনে প্রতি বছরের জুলাই থেকে শস্য মৌসুম শুরু হয়, শেষ হয় পরের বছরের জুনে দেশটির বাণিজ্য কৃষি উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০১৯-২০ মৌসুমে ইউক্রেন থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে কোটি লাখ টন গম রফতানি হয়েছে সময় দেশটি থেকে ভুট্টা অন্যান্য শস্য রফতানিতেও চাঙ্গা ভাব বজায় ছিল সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯-২০ মৌসুমে দেশটি সব মিলিয়ে কোটি লাখ টন ভুট্টা রফতানি করেছে

ইউক্রেনিয়ান গ্রেইন অ্যাসোসিয়েশনের (ইউজিএ) সভাপতি মাইকোলা গর্বাচেভ বলেন, ২০১৯-২০ শস্য মৌসুম ইউক্রেনের জন্য অত্যন্ত সাফল্যের মৌসুমে রেকর্ড খাদ্যশস্য তেলবীজ উৎপাদন করেছে দেশটি রফতানিতেও আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে চলতি মৌসুমে দেশটিতে সব মিলিয়ে কোটি ৮০ লাখ টনের বেশি শস্য উৎপাদন হয়েছে বলে জানান তিনি এর মধ্যে গম উৎপাদন হয়েছে কোটি ৮০ লাখ টন ভুট্টা উৎপাদনও প্রত্যাশার তুলনায় অনেক বেশি বেড়েছে

ইউজিএর পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামীতে শস্য উৎপাদন রফতানিতে ইউক্রেন আরো শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে ধারাবাহিকতায় ২০২৬ সালের মধ্যে দেশটিতে প্রতি বছর গড়ে ১১ কোটি ৩০ লাখ টন শস্য তেলবীজ উৎপাদন হতে পারে সময়ের মধ্যে দেশটি থেকে শস্য রফতানি বেড়ে বছরে গড়ে সাত কোটি টনে উন্নীত হতে পারে

এর আগে ২০১৮-১৯ মৌসুমে দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে মোট পাঁচ কোটি টন শস্য রফতানি হয়েছিল, যা ছিল দেশটির সর্বোচ্চ শস্য রফতানি যেখানে চলতি মৌসুমে কয়েক মাস হাতে থাকতেই দেশটি আগের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যায় চলতি মৌসুমে ইউক্রেনের সম্মিলিত শস্য রফতানি বেড়ে কোটি ২০ লাখ থেকে কোটি ৫০ লাখ টনের রেকর্ড ছুঁতে পারে এছাড়া আগামী মৌসুমেই শস্য রফতানি আরো বেড়ে কোটি ৮৮ লাখ টনে উন্নীত হবে বলে প্রত্যাশা করছে দেশটি

মহামারীর প্রভাব অন্যান্য দেশের মতো ইউক্রেনের শস্য বাজারেও পড়েছে তবে দেশটির সরকারের দ্রুত পদক্ষেপের জেরে তা বেশিদিন স্থায়ী হয়নি মহামারী শুরুর দিকে ইউক্রেন জানিয়েছিল, শস্য রফতানি বন্ধের কোনো পরিকল্পনা নেই তাদের তবে অভ্যন্তরীণ বাজারে শস্যের দাম বৃদ্ধি সরবরাহ অনিশ্চয়তার জেরে কিছুদিনের মধ্যে মত পাল্টায় দেশটি দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়ন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী তারাস ভিসোতস্কি ঘোষণা দেন, নভেল করোনাভাইরাস প্রকোপের মধ্যে অভ্যন্তরীণ বাজার সরবরাহ চক্র স্বাভাবিক রাখতে গমের অতিরিক্ত রফতানি রুখতে প্রস্তুত রয়েছে দেশটির সরকার

অবশ্য খাদ্যপণ্যের ঊর্ধ্বমুখী দাম নিয়ন্ত্রণে এর আগে ইউক্রেনের বেকার মিলাররা শস্য সংশ্লিষ্ট পণ্যের রফতানি সীমিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলেন এর পরিপ্রেক্ষিতে তারাস ভিসোতস্কি জানান, সার্বিক বিষয় বিবেচনায় সাময়িকভাবে গম রফতানি কমিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করেছে ইউক্রেন সরকার দেশটির প্রধান ব্যবসায়ী ইউনিয়ন ইউক্রেন গ্রেইন অ্যাসোসিয়েশনের (ইউজিএ) পক্ষ থেকে ওই সময়ে জানানো হয়েছিল, প্রতিষ্ঠানটি চলতি সপ্তাহে দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে গম রফতানি কমিয়ে আনার বিষয়ে একমত হয়েছে ২০১৯-২০ মৌসুমে সর্বোচ্চ কোটি লাখ টন গম রফতানির পরিকল্পনা রয়েছে দেশটির তবে মৌসুম শেষে দেশটি থেকে খাদ্যপণ্যটির রফতানি কোটি লাখ টনে দাঁড়িয়েছে

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন