রবিবার | জুলাই ১২, ২০২০ | ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

টকিজ

অভিনয়কে সামনে রেখে এগিয়ে যেতে চাই

ফিচার প্রতিবেদক

অভিনয়ে হঠাৎ করেই আসা এরপর বেশকিছু কাজ নিজের আত্মবিশ্বাসের জোরে পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন বলা হচ্ছে ছোট পর্দার অভিনেত্রী নিশাত প্রিয়মের কথা সময়ের নতুন মুখ গত ঈদে তার বেশ কয়েকটি কাজ প্রচারিত হয়েছে শহরালী খান বাড়িবাড়াবাড়ি’—দুটি ধারাবাহিকে রয়েছেন করোনার কারণে ধারাবাহিকগুলোর কাজ আপাতত বন্ধ রয়েছে সম্প্রতি টকিজের মুখোমুখি হয়েছিলেন প্রিয়ম ছোট পর্দার কেউ কেউ কাজ শুরু করলেও এখনো ঘরবন্দি রয়েছেন তিনি বললেন, কাজ এখনো শুরু করিনি তবে ভাবছি সেই অর্থে এখনো ঘরবন্দি ১০০ দিন পার হয়ে গেল

এত দীর্ঘ সময় ঘরবন্দি! কীভাবে কাটছে সময়? ঘরবন্দি সময়গুলো আমার ভালোই কাটছে সাধারণত ব্যস্ততার কারণে পরিবার নিজেকে সময় দেয়া হয়ে ওঠে না অনেক দায়িত্ব ঠিকঠাক পালন করা সম্ভব হয় না তিন মাস ধরে পরিবার, পরিবারের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন নিজেকে সময় দিতে পারছি

পরিবারের নিরাপত্তার কথা ভেবেই মূলত এখনো কাজ শুরু করছেন না প্রিয়ম তার মতে, একক নাটক, ধারাবাহিক এমনকি টিভিসিতে কাজের জন্যও কয়েকজন নির্মাতা আমাকে বলেছিলেন কিন্তু আমি রাজি হইনি এমনকি বাসায় এসে শুট করার কথাও বলা হয়েছিল তাকে কিন্তু তাতেও রাজি হননি বললেন, আমি আমার পরিবারকে ঝুঁকিতে ফেলতে চাই না করোনা যদি ব্যক্তির একার অসুখ হতো তাহলে এত চিন্তা থাকত না কিন্তু এটা তো একজনের থেকে অন্যজনের মাঝে ছড়িয়ে পড়ে কারণে না করেছি


কিন্তু সামনে একটা বড় উৎসব আসছে ঈদুল আজহা গত ঈদে প্রিয়মের তিনটি নাটক একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রচারিত হয়েছে রাতপ্রহরী ফুলনদেবী, ডে উইদাউট স্মার্টফোন নাটকে অভিনেতা মোশাররফ করিমের সঙ্গে জুটি বেঁধে কাজ করেছেন এবার কি তাহলে ঈদকে ঘিরে কোনো কাজই করবেন না? এমন প্রশ্নে তার উত্তর, ঈদে সব আর্টিস্টই চায় দর্শকদের ভালো কাজ উপহার দিতে কিন্তু বর্তমান অবস্থার কারণে আমি নিজেও চিন্তিত কবে কাজ শুরু করব পরিকল্পনা অবশ্যই আছে অন্তত দু-তিনটা কাজ যদি করতে পারি আশা করছি কিছু না কিছু দর্শকরা দেখতে পারবেন নিয়ম-কানুন মেনে, অল্প কলাকুশলীদের নিয়ে যদি কাজ করা হয় তাহলে শুটিং শুরু করবেন বলে জানালেন অভিনেত্রী

অভিনয়ে আসার খুব বেশি দিন হয়নি অল্প সময়ে দর্শকদের কাছ থেকে কেমন সাড়া পাচ্ছেন? খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি গত ঈদে চারটি কনটেন্ট প্রচারিত হয়েছে সবকিছু মিলিয়ে সবাই সুনাম করেছে বিশেষ করে অভিনয়ের প্রশংসা পেয়েছি দর্শকদের এমন সাড়া নিশ্চয়ই অনেক অনুপ্রেরণা তৈরি করে? আমরা তো দর্শকদের জন্যই কাজ করি তাদের ভালোবাসা আছে বলেই আগামী ঈদের জন্য কাজ করতে ইচ্ছা হচ্ছে

খুব পরিকল্পনা করে অভিনয়ে আসেননি প্রিয়ম গল্পটা একটু অন্য রকম পরিবারে কেউই মিডিয়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত নন সেদিক থেকে অভিনয়ে আসাটা সহজ ছিল না তার জন্য আত্মবিশ্বাস সাহসের একমাত্র কেন্দ্র বলতে ছিলেন তার মা প্রিয়ম বলেন, একমাত্র আমার মা আমাকে সাপোর্ট করেছে টিভিসি দিয়ে মিডিয়ায় প্রথম কাজ শুরু করি তারপর একটা কাজ করার পর যখন ভালো সাড়া পেয়েছি, তখন আরেকটি কাজ করেছি আমি আসলে কাজ করে করে এগিয়েছি এভাবেই শিখছি আমি তো অনেক দেরিতে এসেছি যখন এমবিএ করছিলাম ঠিক সে সময় কাজ শুরু করি

তবে এখন নাকি পরিবারের কাছ থেকে বেশ ভালো সমর্থন পাচ্ছেন অভিনেত্রী তিনি জানান, আমার সব কাজে সবচেয়ে বড় উদ্দীপনা আমার মা যেহেতু পরিবারের কেউ মিডিয়ার ছিল না তাদের বোঝানো খুব কষ্টকর ছিল তাই মাকে ছাড়া কাউকে বোঝাতে যাইনি কাজ করতে করতে সবাই যখন দেখল কাজগুলো ভালো হচ্ছে তখন দর্শকদের মতো তারাও গ্রহণ করতে শুরু করে

এত কষ্ট করে যখন অভিনয়ে আসা তখন নিয়ে আগামীর কী পরিকল্পনা? নিজেকে আরো দক্ষ করে তোলা অভিনয় শেখার জন্য যা যা প্রয়োজন তা- করা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে নিজেকে আরো প্রস্তুত করে তুলতে চাই শেখার কোনো শেষ নেই অভিনয়টাকে সামনে রেখেই এগিয়ে যেতে চাই

অল্প সময়ের মধ্যে বেশ কয়েকজন তরুণ নির্মাতা সহশিল্পীদের সঙ্গে কাজ করেছেন প্রিয়ম তরুণ নির্মাতাদের ওপর কেমন ভরসা করেন জানতে চাওয়া হয় তিনি বলেন, এখন তো তরুণ নির্মাতাই বেশি দর্শক বুঝে ভালো নাটক তৈরি করছেন তারা আর সহশিল্পীদের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা? আমি যাদের পেয়েছি তারা সবাই অসাধারণ সবার কাছ থেকেই সহযোগিতা পেয়েছি

সবার জীবনেই কোনো না কোনো মূলমন্ত্র থাকে প্রিয়মেরও তাই সেই মূলমন্ত্রকে ঘিরে সামনে এগিয়ে যেতে চান কিন্তু কি সেই মূলমন্ত্র? প্রথমত সবার আগে ভালো মানুষ হওয়া দ্বিতীয়ত পরিশ্রমী হওয়া যে পরিশ্রমী সে কোথাও ঠেকবে না বলে মনে করেন অভিনেত্রী

আলাপের একেবারে শেষ দিকে সময় প্রিয়ম তার ভক্ত পাঠকদের জন্য কিছু বার্তা দিলেন বললেন, এখন করোনার সময় সবার উচিত সাবধান থেকে কাজ করা করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের যেন আমরা ঘৃণা না করি অনেককেই এলাকা ছাড়া করা হচ্ছে এগুলো যেন আমরা না করি এটা একটা রোগ যে কেউ আক্রান্ত হতে পারি সবাই যেন সবাইকে সহায়তা করি আর প্রার্থনা করি পরিস্থিতি যেন দ্রুত স্বাভাবিক হয়


এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন