রবিবার | আগস্ট ০৯, ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

খবর

একাত্তরের যুদ্ধে পেয়েছিলাম ভালোবাসা, আর এখন পাচ্ছি: জাফরুল্লাহ চৌধুরী

বণিক বার্তা অনলাইন

করোনামুক্তির পর ‘কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও চিকিৎসা ব্যয় নিয়ে আলোচনার’ আয়োজন করেছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘আপনারা যে এতজনে দোয়া করেছেন, পথে-ঘাটে, যে যেখানে পেরেছে, তা অকল্পনীয়। মানুষ যে একটা মানুষকে এত ভালোবাসতে পারে, বুঝতে পারিনি। যুদ্ধের পরে এই দেখলাম, একাত্তরের যুদ্ধে পেয়েছিলাম ভালোবাসা, আর এখন পাচ্ছি।’

বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর ধানমন্ডির গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালের গেরিলা কমান্ডার মেজর এ টি এম হায়দার বীর উত্তম মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন ডা. জাফরুল্লাহ। সভায় তিনি খুবই অল্প সময় কথা বলেন।

আলোচনার শুরুতেই গণস্বাস্থ্য ডায়ালাইসিস সেন্টারের সমন্বয়ক ডা. মু‌হিব উল্লাহ খোন্দকার সঞ্চালক বলেন, আপনাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে ডা. জাফরুল্লাহর একটু সমস্যা হবে। যতটা কম কথা বলা যায়, সেটাই হলো মূল লক্ষ্য।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী অস্পষ্ট কণ্ঠে বলেন, ‘আমি গলার কারণে বেশি কথা বলতে পারছি না। আমাদের বেশিরভাগ কথা আজ ডিজিটালি হবে।

এরপর তিনি আজকের আয়োজনের তিনটি বিষয়ের কথা বলেন। প্রথম বিষয়ে তিনি সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এরপর তিনি তার করোনা চিকিৎসার ব্যয়ের কথা বলেন এবং তৃতীয় ধাপে অতিরিক্ত আলোচনা হিসেবে ‘করোনা বনাম বিশ্ব পুঁজিবাজার ২০২০-২১ বাংলাদেশ প্রেক্ষাপট’ বিষয়ে আলোচনার কথা জানান।

এর আগে গত ২৫ মে গণস্বাস্থের উদ্ভাবিত কিটে পরীক্ষার মাধ্যমে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনা পজিটিভ হওয়ার কথা জানানো হয়। পরে পিসিআর ল্যাবেও তার করোনা পজিটিভ আসে। পরে গত ১৩ জুন তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসে। পরের দিনই আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে বনানীতে যান। তবে সেখান থেকে ফিরে হাসপাতালেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন