শুক্রবার | জুলাই ১০, ২০২০ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

টিকটক অ্যাপ নিয়ন্ত্রণের আহ্বান

বণিক বার্তা ডেস্ক

জনপ্রিয় মোবাইল অ্যাপ টিকটক কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। অ্যাপটি তরুণ প্রজন্মের সংস্কৃতি জ্ঞান ধ্বংস করছে পর্নোগ্রাফির মতো বিষয়ে আসক্ত করে তুলছে। এটি সমাজের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। সম্প্রতি ভারতের ওডিশা উচ্চ আদালতের পক্ষ থেকে কথা বলা হয়েছে। খবর ইটি টেলিকম।

বিচারপতি এস কে পানিগ্রাহি বলেন, আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য পৃথিবীকে আরো নিরাপদ বাসযোগ্য করতে কাজ করছি। তবে টিকটকের মতো অ্যাপ তরুণ প্রজন্মের মধ্যে সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ ধ্বংস করছে। বিভিন্ন ধরনের নেতিবাচক কনটেন্ট তৈরি এবং সেগুলো দ্রুত হাজার হাজার মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার সস্তা সহজ মাধ্যম হয়ে উঠেছে টিকটক। ভবিষ্যৎ সমাজের জন্য অ্যাপ কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা উচিত। ওই বিচারপতি নিজ পর্যবেক্ষণ থেকে টিকটক অ্যাপ নিয়ন্ত্রণের কথা বলেছেন।

টিকটক খুব অল্প সময়ে বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। চীনভিত্তিক বাইটডান্সের স্বল্পদৈর্ঘ্য ভিডিও তৈরি এবং তা শেয়ারের সোস্যাল প্লাটফর্ম টিকটক। কভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় লকডাউনের কারণে আরো অনেক অ্যাপের মতো টিকটক ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বিশ্বজুড়ে ঘরবন্দি কয়েকশ কোটি মানুষ মজাদার স্বল্পদৈর্ঘ্যের ভিডিও তৈরির অ্যাপ ব্যবহার করছেন। অবশ্য টিকটকের নিরাপত্তা নিয়ে শুরু থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে আসছেন বিশেষজ্ঞরা। যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি অ্যাপটির নিরাপত্তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে ডাচ কর্তৃপক্ষ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, সম্প্রতি টিকটক অ্যাপে প্যারেন্টাল কন্ট্রোল ফিচার যোগ করা হয়েছে। শিশুরা অ্যাপটি ব্যবহারের সময় অভিভাবকদের নজরদারির সুবিধা দিতে নতুন ফিচার আনে প্রতিষ্ঠানটি। ডাচ ডাটা প্রটেকশন অথরিটি (ডিপিএ) প্রশ্ন তুলেছে শিশুদের ডাটা কীভাবে ব্যবহার করে টিকটক তা খতিয়ে দেখার সময় এসেছে। টিকটক অ্যাপ বিশ্বজুড়ে ৫০ থেকে শতকোটি মানুষ সক্রিয়ভাবে ব্যবহার করছেন।

টিকটক কীভাবে শিশুদের ডাটা ব্যবহার করছে, মূলত সেটাই খতিয়ে দেখতে চায় ডাচ কর্তৃপক্ষ। টিকটক জানিয়েছে, তারা তদন্তের বিষয়ে ডাচ কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিচ্ছে। এর আগে ভারতীয়দের তথ্য চীনে পাচারের অভিযোগ উঠেছিল টিকটকের বিরুদ্ধে।

বিষয়ে টিকটকের প্যারেন্ট কোম্পানি বাইটডান্সের মুখপাত্র গাডরান হারমান বলেন, টিকটক ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা রক্ষা করা এবং তথ্য সুরক্ষাদান আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পেয়ে থাকে। বিশেষ করে তুলনামূলক স্বল্পবয়সী ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে টিকটক কঠোর নিরাপত্তা নীতি অনুসরণ করে আসছে।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন