বুধবার | জুলাই ১৫, ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

দেশের খবর

ঘূর্ণিঝড় আম্পান

পানি জমে বন্ধ ভৈরব নদের খননকাজ

বণিক বার্তা প্রতিনিধি যশোর

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে বৃষ্টিপাতে যশোর শহর অংশে পানি জমে ভৈরব নদের খননকাজ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে যথাসময়ে খননকাজ সম্পন্ন করা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। সংশ্লিষ্টদের আশঙ্কা, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে খননকাজ সম্পন্ন করা না গেলে নতুন করে দরপত্র আহ্বান করতে হবে। এমনটি হলে নদ ঘিরে প্রস্তাবিত উন্নয়নকাজও ব্যাহত হতে পারে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্র জানায়, যশোর শহর অংশের ভৈরব নদ খননের লক্ষ্যে দরপত্র আহ্বান করে কাজ শুরুর সময় নির্ধারণ করা হয় ২০১৯ সালের আগস্ট। চলতি বছরের ২০ জুন কাজ শেষ করার জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়। সময়ের মধ্যে শহরের কাঠের পুল থেকে বিরামপুর পর্যন্ত চার কিলোমিটার দৈর্ঘ্য ৪৫ মিটার প্রস্থের সমান এলাকার খননকাজ শেষ করতে হবে। কিন্তু ভৈরব নদ খননকাজ শুরু হয় গত জানুয়ারিতে। এরপর বেশি দিন খননকাজও অব্যাহত রাখা যায়নি। নভেল করোনাভাইরাসের কারণে মার্চের শেষে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়। এক মাস খননকাজ বন্ধ রাখার পর গত রমজানে ফের খননকাজ শুরু করা হয়। এরই মধ্যে ২১ মে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে বৃষ্টি হওয়ায় ভৈরব নদের শহর অংশে পানি জমে যাওয়ায় আবারো খননকাজ বন্ধ করা হয়েছে। এরপর খননকাজ আর শুরু করা হয়নি। চলতি বছর বর্ষা মৌসুমের আগে কাজ আর শুরু করা যাবে না।

ব্যাপারে পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী তৌহিদুল ইসলাম জানান, আম্পানের সময় অনেক বৃষ্টি হওয়ায় ভৈরব নদের শহর অংশে যে পরিমাণ পানি জমেছে, সেখানে এস্কেভেটর দিয়ে খননকাজ করা যাবে না। রোদে যদি পানি শুকিয়ে খননকাজ করার মতো পরিবেশ তৈরি হয় তাহলে কাজ এগিয়ে রাখা হবে। কিন্তু আগামী ২০ জুনের মধ্যে কোনো রকম কাজ শেষ করা যাবে না। তবে কাজের মেয়াদ আগামী বছর ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। আশা করছি ওই সময়ের মধ্যে কাজ শেষ হবে।

প্রসঙ্গত, একসময় ভৈবর নদ ছিল যশোর শহরের প্রাণ। দখল দূষণে প্রমত্তা ভৈরব এখন মরা খাল। শহরবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালে যশোরে এসে ভৈরব নদ খননের প্রতিশ্রুতি দেন। ওই প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ২৭২ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করে পাঁচ বছর মেয়াদি ভৈরব নদ অববাহিকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ টেকসই পানি ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন প্রকল্প শুরু হয়। প্রকল্পের আওতায় ৯২ কিলোমিটার খননকাজ হবে। এরই মধ্যে নদের উজান ভাটির ৬০ কিলোমিটারের বেশি খননকাজ শেষ হয়েছে।

যশোর শহর অংশে ভৈরব নদের তীরে সৌন্দর্যবর্ধন শহরবাসীর জন্য ফুটপাত তৈরিতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে ৫০ লাখ টাকা বরাদ্দের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। ব্যাপারে প্রকল্প প্রস্তাবনা তৈরির কাজ করছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)

এলজিইডি যশোরের নির্বাহী প্রকৌশলী মির্জা মো. ইফতেখার আলী বলেন, ভৈরব নদের পাঁচ কিলোমিটারের দুই তীরে সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য ৫০ লাখ টাকার একটি প্রকল্প প্রস্তাবনার কাজ চলছে। ভৈরব তীরের সমীক্ষা যাচাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে। এরপর প্রকল্প প্রস্তাবনা তৈরি করে অনুমোদনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন