বৃহস্পতিবার | আগস্ট ১৩, ২০২০ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭

পণ্যবাজার

হিলি স্থলবন্দর

একদিনে পেঁয়াজের দাম কমল কেজিতে ৭ টাকা

বণিক বার্তা প্রতিনিধি হিলি

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের পাইকারি বাজারে একদিনের ব্যবধানে দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে সর্বোচ্চ টাকা। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মতে, ভারত থেকে রেলপথে পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। মূলত সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় পণ্যটির দাম কমতে শুরু করেছে।

গতকাল হিলির পাইকারি আড়তগুলো ঘুরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ মানভেদে ৩৮-৪০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। একদিন আগেও এখানকার পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ সর্বনিম্ন ৪৫ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে একদিনে হিলিতে পেঁয়াজের দাম কেজিতে সর্বোচ্চ টাকা বেড়েছে।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী শাকিল খান বণিক বার্তাকে বলেন, করোনাভাইরাসের মহামারী ঠেকাতে দেশে টানা সরকারি ছুটি চলছে। ভারতে চলছে লকডাউন। দুইয়ের জের ধরে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। সময় চাহিদা থাকা সত্ত্বেও ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি হয়নি। পরিস্থিতিতে সরবরাহ কমে গিয়ে পাইকারি পর্যায়ে পেঁয়াজের দাম বাড়তির দিকে ছিল। মাঝে ঈদের কারণে চাহিদা বেড়ে গিয়ে আরেক দফা দাম বাড়ে পেঁয়াজের।

তবে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার হিলি স্থলবন্দরে রেলপথে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। ফলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ খানিকটা বেড়েছে। একইভাবে মোকামগুলোয় দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকায় বাজারে পণ্যটির সরবরাহ ঘাটতি কাটতে শুরু করেছে। কমতে শুরু করেছে দাম। একদিনেই পেঁয়াজের দাম কেজিতে সর্বোচ্চ টাকা কমে গেছে।

বণিক বার্তার সঙ্গে আলাপকালে ব্যবসায়ী শাকিল খান আরো বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। তবে মান ভালো হওয়ায় ক্রেতারা এখনো দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজ বেশি কিনছেন। একদিকে বাড়তি সরবরাহ, অন্যদিকে ক্রেতাদের কাছে তুলনামূলক বেশি চাহিদা দুই প্রবণতা পাইকারি বাজারে পণ্যটির দাম কমাতে প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন