বুধবার | জুলাই ১৫, ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

দেশের খবর

মদ্যপানে চারদিনে ২১ জনের মৃত্যু

বণিক বার্তা ডেস্ক

দিনাজপুর, রংপুর বগুড়ায় মদ্যপানে চারদিনে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত সোমবার থেকে গতকালের মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর

দিনাজপুর: বিরামপুরে দুদিনে মদ্যপানে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে গত বুধবার আটজন গতকাল দুজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া চিকিৎসাধীন আরো ১৫ জন। ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে বিরামপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। মামলায় আব্দুল মান্নান নামে এক হোমিও ওষুধ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন বিরামপুর পৌর শহরের হঠাৎপাড়া মহল্লার শফিকুল ইসলাম তার স্ত্রী মঞ্জুয়ারা, শান্তিনগর মহল্লার মো. আনোর ছেলে আব্দুল মতিন, মাহমুদপুর মহল্লার আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুল আলিম, মো. তোজাম শাহর ছেলে আজিজুল ইসলাম, সুলতানের ছেলে মহসীন আলী, আজিজার রহমানের ছেলে সোহেল রানা, আফিল উদ্দিনের ছেলে মো. মনো মিয়া, কাজিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন এবং ইসলামপাড়া মহল্লার তাপস রায়ের ছেলে অমৃত রায়।

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার রাতে মাহমুদপুরে কয়েকজন মিলে মদ পানের আসর বসায়। পরে সেখানেই অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ে। দ্রুত তাদের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল মতিন, মহসিন আজিজুলকে মৃত ঘোষণা করেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে অমৃত রায় নামে আরেকজনের মৃত্যু হয়। রাতে সোহেল রানা মনো নামে আরো দুজনের মৃত্যু হয়। একই দিন পৌর শহরের হঠাৎপাড়া মহল্লায় নিজ বাড়িতে চোলাই মদ খেয়ে অসুস্থ হয়ে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শফিকুল ইসলাম তার স্ত্রী মঞ্জুয়ারা মারা যান। গতকাল সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল আলিম নিজ বাড়িতে আনোয়ার হোসেনের মৃত্যু হয়।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তৌহিদুর রহমান এই ১০ জনের মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত বুধবার থেকে গতকাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ রংপুর মেডিকেল কলেজে নয়জনের মৃত্যু হয়। পরবর্তী সময়ে আরো একজন নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন বলে জানতে পারি। ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক রাজিউর রহমান জানান, কিছু মানুষ স্পিরিটজাতীয় তরল পদার্থ খেয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। বিষয়টি জানার পর গত বুধবার থেকে বিভিন্ন হোমিও দোকানে অভিযান চালানো হচ্ছে।

রংপুর: জেলায় মদ্যপানে তিনদিনে নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে গত সোমবার দুজন, গত মঙ্গলবার ছয়জন এবং গত বুধবার একজনের মৃত্যু হয়।

নিহতরা হলেন বদরগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের নুর ইসলাম, সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নের সরোয়ার হোসেন, মোস্তফা কামাল, পীরগঞ্জ উপজেলার শানেরহাট খোলাহাটি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক, পাহাড়পুরের জাইদুল হক, মিঠাপুকুর উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের চন্দন কুমার, বড় পাহাড়পুর গ্রামের সেলিম মিয়া, রায়তি সাদুল্লাপুরের দুলা মিয়া হরিরাম সাহাপুরের লুলু মিয়া।

সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান জানান, মদ্যপানে তিনদিনে মোট নয়জনের মৃত্যু হয়ছে। এখনো বেশ কয়েকজন অসুস্থ। আইনি জটিলতা এড়াতে তাদের অনেকে গা ঢাকা দিয়েছে।

শানেরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মন্টু বলেন, মৃত ব্যক্তিদের বেশির ভাগ নিয়মিত মাদক সেবন করত বলে অভিযোগ রয়েছে।

পীরগঞ্জ থানার ওসি সরেস চন্দ্র জানান, মদ্যপানে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। তবে তদন্ত শেষে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বলা যাবে।

রংপুরের পুলিশ সুপার এসপি বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, মৃত্যুর প্রকৃত কারণ উদ্ঘাটনসহ মদের উৎস এবং মদ সরবরাহকারীদের খুঁজতে পুলিশ কাজ করছে।

বগুড়া: ধুনটে কালেরপাড়া ইউনিয়নের ঈশ্বরঘাট বাজারে মদ ভেবে রেকটিফাইড স্পিরিট পানে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার রাতে গতকাল ভোরে তাদের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ তাদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতরা হলেন ধুনটের ঈশ্বরঘাট গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে আল

আমিন ওরফে কসাই একই গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে গাড়িচালক আব্দুল আলিম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার দুপুরে আল আমিন চালক আব্দুল আলিম ঈশ্বরঘাট বাজারে একসঙ্গে রেকটিফাইড স্পিরিট (আরএস) পান করেন। পরে বাসায় ফিরে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন। এদের মধ্যে আল আমিন রাতে নিজ বাড়িতে মারা যান। আর আব্দুল আলিমে প্রথমে ধুনট হাসপাতাল নেয়া হয়। সেখান থেকে রাতে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল ভোরে তিনি মারা যান।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে, মদজাতীয় কিছু পান করে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মরদেহের ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন