রবিবার | জুলাই ১২, ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

খবর

ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি

বণিক বার্তা অনলাইন

রাজধানীর গুলশানে বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ রোগীর মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনায় চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করেছে ফায়ার সার্ভিস। কমিটির নেতৃত্ব দেবেন উপ-পরিচালক দেবাশীষ বর্ধন।

ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তদন্ত কমিটি প্রত্যক্ষদর্শী, রোগীর আত্মীয়-স্বজন ও হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট সবার বক্তব্য শুনে খুব শিগগিরই এ দুর্ঘটনার প্রতিবেদন দেবে।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন, ফায়ার ব্রিগেড ট্রেনিং সেন্টারের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বাবুল চক্রবর্তী, উপ-সহকারী পরিচালক নিয়াজ আহমেদ এবং বারিধারার সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আবুল কালাম আজাদ।

এর আগে গতকাল বুধবার রাতে পৌনে ১০টার দিকে হাসপাতালটি করোনা রোগীদের জন্য করা আইসোলেশন ইউনিটে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট আধা ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় পাঁচটি মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

পরে রাতেই গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি পাঠায় ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালের যোগাযোগ ও ব্যবসা উন্নয়ন বিভাগের প্রধান ডা. শাগুফা আনোয়ার স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, গভীর দুঃখের সাথে জানাচ্ছি যে, আজ ২৭ মে আনুমানিক রাত সাড়ে ৯টার দিকে হাসপাতাল সংলগ্ন মূল ভবনের বাইরে করোনা রোগীদের জন্য করা আইসোলেশন ইউনিটে সম্ভবত বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে অগ্নিকাণ্ডের সৃষ্টি হয় এবং কয়েক মিনিটের মধ্যে আগুন আইসোলেশন ইউনিটের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার সময় আবহাওয়া খারাপ ছিল এবং বিদ্যুৎ চমকাচ্ছিল জানিয়ে শাগুফা আনোয়ার বলেন, বাতাসের তীব্রতায় আগুন প্রচণ্ড দ্রুততার সাথে ছড়িয়ে পড়ার ফলে দুর্ভাগ্যজনকভাবে এখানে ভর্তি ৫ জন রোগীকে বাইরে বের করে আনা সম্ভভ হয়নি। ভেতরে থাকা ৫ রোগী মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নানিল্লাহি...রাজিউন)।

মারা যাওয়া পাঁচজনের মধ্যে চারজন পুরুষ এবং একজন নারী। তারা হলেন- রিয়াজুল আলম (৪৫), খোদেজা বেগম (৭০), ভেরুন এন্থনি পল (৭৪), মো. মনির হোসেন (৭৫) এবং মো. মাহবুব (৫০)।

অগ্নিকাণ্ডের পরে তাৎক্ষণিকভাবে দমকল বাহিনীকে খবর দেয়া হয়েছে জানিয়ে বিবৃতিতে ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করে, হাসপাতালের নিজস্ব অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা ও দমকল বাহিনীর সহায়তায় ১৫-২০ মিনিটে আগুন নিভিয়ে ফেলা হয়।

এ ঘটনায় ‘গভীর দুঃখ’ প্রকাশ করে ডা. শাগুফা বলেন, অগ্নিকাণ্ডের কারণ অনুসন্ধানে দমকল বাহিনী তদন্ত করছে এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে তাদের পূর্ণ সহায়তা করছে। এই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনায় পাঁচ রোগীর শোক সন্তপ্ত পরিবারকে ইতোমধ্যে ঘটনা সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

হাসপাতালে ভর্তি অন্য সব রোগীর নিরাপত্তার ব্যাপারে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগী ও তাদের পরিবারকে এই অনভিপ্রেত ঘটনায় আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ করেন ডা. শাগুফা আনোয়ার। একই সঙ্গে এই ‘দুর্যোগের’ সময় ধৈর্য ও সহনশীলতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য সহযোগিতা চেয়ে অনুরোধ জানান তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন