মঙ্গলবার | জুলাই ১৪, ২০২০ | ৩০ আষাঢ় ১৪২৭

খবর

সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না, বন্ধই থাকছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক

চলমান সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না। তবে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিসে কাজ করতে হবে। এসময় বয়স্ক এবং গর্ভবতী নারীদের অফিসে আসতে হবে না। আর গণপরিবহণও বন্ধ থাকবে। 

আপাতত স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে ১৫ জুন পর্যন্ত। পরবর্তীতে স্কুল কলেজ খোলা হবে কিনা সেটি সিদ্ধান্ত নেয়া হবে পরিস্থিতি বিবেচনা করে। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজে যোগ দিতে হবে। 

এসব তথ্য উল্লেখ করে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২৮ মে) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

দেশে ক্রমাগত বেড়ে চলা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান সাধারণ ছুটি আরো বাড়ানো হবে কিনা সে বিষয়ে কাল জানা যাবে উল্লেখ করে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, ঈদের আগের দিন জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের জীবন-জীবিকার কথা বলেছেন। এ পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে একটা সিদ্ধান্ত দেবেন প্রধানমন্ত্রী। ছুটির মেয়াদ ৩০ মে শেষ হবে। ৩০ মে’র আগেই ছুটি বাড়বে কিনা সে সিদ্ধান্ত জানাতে হবে। আগামীকাল এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে আশা করছি।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ২৩ মার্চ সরকার প্রথম দফায় ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে। পরে দ্বিতীয় দফায় ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত, তৃতীয় দফায় ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত ও চতুর্থ দফায় ৫ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বর্ধিত করা হয়। এরপরও পরিস্থিতির উন্নত না হওয়ায় পঞ্চম দফায় ১৬ মে এবং সর্বশেষ ৩০ মে পর্যন্ত ছুটি বৃদ্ধি করে সরকার।

২৫ এপ্রিল একটি প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জরুরি পরিষেবা প্রদানের সঙ্গে জড়িত সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং তাদের অধীনস্থ অফিসগুলো বর্ধিত সাধারণ ছুটির দিনে সীমিত আকারে খোলা থাকবে। সর্বশেষ গত ১৪ মে জারি করা প্রজ্ঞাপনে ১৭ মে থেকে যে সাধারণ ছুটি, শবে কদরের ছুটি, সাপ্তাহিক ছুটি এবং ঈদের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়, এখনও তা চলছে। করোনার সংক্রমণ রোধে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি রেল, সড়ক, নৌ ও বিমান যোগাযোগ বন্ধ রেখেছে সরকার।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন