মঙ্গলবার | জুলাই ১৪, ২০২০ | ৩০ আষাঢ় ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

ভ্যাকসিন সহজপ্রাপ্য হওয়ার আগে ফিলিপাইনে স্কুল খুলবে না

বণিক বার্তা ডেস্ক

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষায় ভ্যাকসিন উদ্ভাবিত হয়ে তা জনসাধারণের হাতের নাগালে আসার আগ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের স্কুলে ফেরত পাঠাতে নারাজ ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। সংক্রমণ প্রতিরোধে মার্চ থেকেই দেশটির সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ফিলিপাইনের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের আড়াই কোটি শিক্ষার্থীর আগস্টেই স্কুলে ফেরার কথা ছিল।

সাম্প্রতিক এক বক্তব্যে দুতার্তে বলেন, শিক্ষার্থীরা যদি এখন শিক্ষা কার্যক্রমে ফিরেও আসে, তবুও এক্ষেত্রে ঝুঁকি অনেক বেশি।

তিনি বলেন, ‘যতক্ষণ পর্যন্ত আমি নিশ্চিত হতে পারছি না, তারা সবাই নিরাপদে আছে; ততক্ষণ পর্যন্ত ক্লাস চালুর কথা বলা নিরর্থক। আমার কাছে এখন ভ্যাকসিনটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যদি ভ্যাকসিন চলে আসে, তাহলে ঠিক আছে। কিন্তু এর আগ পর্যন্ত যদি একজনও পাস না করে বেরোয়, তবে তাই হোক।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নভেল করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক উদ্ভাবনের জন্য এক অভূতপূর্ব বৈশ্বিক প্রয়াস চালাচ্ছেন গবেষকরা। এর সম্ভাব্য ফল কবে নাগাদ হাতে পাওয়া যাবে ও ব্যাপক হারে বিতরণের উপযোগী হবে, তা এখন পর্যন্ত পরিস্কার নয়।

ফিলিপাইনের সরকারি স্কুলগুলো সাধারণত জুন থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চালু থাকে। কিন্তু দেশটিতে সংক্রমণের সংখ্যা বাড়তে থাকায় তা বন্ধ রাখতে বাধ্য হচ্ছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। এছাড়া কঠোর লকডাউনের কারণে দেশটির জীবনযাত্রাও এখন পুরোপুরি থমকে রয়েছে।
 
শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের ভিড়ে সংক্রমণ ছড়ানো এড়াতে আগামি শিক্ষাবর্ষে অনুসরণীয় কিছু পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছে ফিলিপাইনের শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে অনলাইন ক্লাসসহ বেশ কিছু দূরশিক্ষণ কার্যক্রমের ঘোষণাও রয়েছে। তবে এক্ষেত্রে সমস্যা হলো দারিদ্রপীড়িত ফিলিপাইনের সব শিক্ষার্থীর ঘরে কম্পিউটার নেই। এ কারণে তাদের জন্য অনলাইন ক্লাসের ব্যবস্থা করাটা বেশ মুশকিল হয়ে দাঁড়াতে পারে।

প্রসঙ্গত, ফিলিপাইনে মঙ্গলবার পর্যন্ত মোট ১৪ হাজার ৬৬৯ জনের নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৮৮৬ জনের।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন