বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

আন্তর্জাতিক খবর

করাচিতে ৯৮ যাত্রী নিয়ে উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত

বণিক বার্তা ডেস্ক

পাকিস্তানের করাচিতে গতকাল দুপুরে ৯৮ জন যাত্রী নিয়ে অভ্যন্তরীণ রুটের একটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়েছে। পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনসের (পিআইএ) উড়োজাহাজটি করাচি বিমানবন্দরসংলগ্ন একটি জনবহুল আবাসিক এলাকার ওপর বিধ্বস্ত হওয়ায় হতাহতের সংখ্যা অনেক বেশি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গতকাল রাতে প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার তত্পরতা চলছিল। খবর এএফপি ডন।

পিআইএর মুখপাত্র আবদুল্লাহ হাফিজ জানান, এয়ারবাস এ৩২০ মডেলের উড়োজাহাজটি লাহোর থেকে করাচি ফিরছিল। সময় উড়োজাহাজটিতে ৯১ যাত্রী সাতজন ক্রু ছিলেন। করাচির আকাশে আসার পর এটি জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসংলগ্ন জনবহুল করাচি মডেল কলোনির ওপর বিধ্বস্ত হয়। দুর্ঘটনায় উড়োজাহাজটিতে অবস্থানরত সবাই মারা গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। হতাহত হয়েছেন স্থানীয় আবাসিক এলাকার বাসিন্দারাও।

বিষয়ে আবদুল হাফিজ বলেন, হতাহতের বিষয়টি এত দ্রুত নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। উদ্ধার তত্পরতা এখনো চলছে। এটার অগ্রগতির ওপর ভিত্তি করে আমরা হতাহতের বিস্তারিত তথ্য জানতে পারব।

তবে প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দুর্ঘটনাস্থল থেকে ১৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহত অন্তত ২৫ জনকে করাচির বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিষয়ে সিন্ধু প্রদেশের গভর্নর ইমরান ইসমাইল বলেন, পিআইএর উড়োজাহাজটি একটি জনবহুল আবাসিক এলাকার ওপর বিধ্বস্ত হয়েছে। উড়োজাহাজটির পাশাপাশি কয়েকটি আবাসিক ভবন পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। কারণে উদ্ধারকাজ পরিচালনা করতে সময় লাগছে। তাই আমরা ধারণা করছি, হতাহতের সংখ্যা অনেক বেশি হতে পারে। সবশেষ মরদেহটি খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত উদ্ধার কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়া হবে।

এদিকে পাকিস্তান এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র আবদুল সাত্তার গণমাধ্যমকে বলেন, যাত্রাপথে উড়োজাহাজটিতে যান্ত্রিক ত্রুটি ধরা পড়ে। তখনই বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণকক্ষে ত্রুটির বিষয়টি জানান পাইলট। উড়োজাহাজটির নিরাপদ অবতরণের জন্য বিমানবন্দরে পৃথক দুটি রানওয়ে সম্পূর্ণ প্রস্তুত রাখা হয়। তবে উড়োজাহাজটি একাধিকবার অবতরণের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী শাকিল আহমেদ বলেন, পিআইএর উড়োজাহাজটি অনেকক্ষণ ধরে আকাশে চক্কর দিচ্ছিল। এরপর এটি দ্রুতই আবাসিক এলাকার একটি মোবাইল টাওয়ারের ওপর আছড়ে পড়ে। এতে এলাকার কয়েকটি বাড়ি পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। সময় দুর্ঘটনাস্থলে আগুন জ্বলতে দেখা যায়।

দুর্ঘটনাস্থলে সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। তারা উদ্ধারকাজ পরিচালনা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করবেন।

দুর্ঘটনাকবলিত উড়োজাহাজটিতে পাকিস্তানি গণমাধ্যম ২৪ নিউজের অনুষ্ঠান শাখার পরিচালক আনসার নাকভি ব্যাংক অব পাঞ্জাবের প্রেসিডেন্ট জাফর মাসুদ ছিলেন বলে তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। এর মধ্যে জাফর মাসুদের পরিবার তার মৃত্যুর তথ্য জানিয়েছে।

আসন্ন ঈদুল ফিতরের আগ মুহূর্তে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় শোক জানিয়েছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এক টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, ঈদের আগে এটা অত্যন্ত হূদয়বিদারক একটি ঘটনা। হতাহতদের প্রতি প্রার্থনা শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানাচ্ছি।

নভেল করোনাভাইরাসের মহামারী ঠেকাতে দীর্ঘদিন ধরেই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক অভ্যন্তরীণ রুটে উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ ছিল। ঈদ উপলক্ষে সম্প্রতি দেশটির সরকার অভ্যন্তরীণ রুটে সীমিত পরিসরে উড়োজাহাজ চলাচলের অনুমতি দিয়েছে। এর মধ্যেই দেশটিতে আবাসিক এলাকার ওপর পিআইএর উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনা ঘটল।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন