শনিবার | জুলাই ১১, ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

করোনা

জুম ভিডিও কলের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ডের রায়

বণিক বার্তা ডেস্ক

নভেল করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে সিঙ্গাপুরে ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে জুম ভিডিও কলের মাধ্যমে মাদকসংক্রান্ত মামলায় এক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। সিঙ্গাপুরের ইতিহাসে এটাই সর্বপ্রথম রায়, যেখানে ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে কোনো আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হলো। তবে মহামারীর সময় ভার্চুয়ালি এমন রায়ের সমালোচনা করেছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো।

মাদক কারবারে জড়িত থাকায় পুনিথান গানাসান (৩৭) নামের ওই যুবককে দণ্ড দেয়া হয়েছে। চলমান লকডাউনের কারণে সিঙ্গাপুরে আদালতের শুনানি অন্তত জুন পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। তবে যে মামলাগুলো অপরিহার্য হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে, সেগুলো ভার্চুয়াল আলাদতের মাধ্যমে বিচারকার্য পরিচালনা করা হচ্ছে।

সিঙ্গাপুর সুপ্রিম কোর্টের একজন মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেন, এই মামলার বিচারকার্যের সঙ্গে যুক্ত সবার নিরাপত্তার জন্য মামলার কার্যক্রম ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়েছে। এদিনে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে বলে জানিয়েছেন গানাসানের আইনজীবী পিটার ফার্নান্দো।

সিঙ্গাপুরে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি রয়েছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মতে, দেশটিতে ২০১৮ সালে ১৮ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল, যা দুই দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ। এই ১৮ জনের মধ্যে ১১ জন মাদকসংক্রান্ত মামলার আসামি ছিলেন। সংস্থাটি বলছে, রায়টি স্মরণ করিয়ে দিয়েছে যে মাদক পাচারের জন্য মৃত্যুদণ্ড চাপিয়ে দিয়ে সিঙ্গাপুর আন্তর্জাতিক আইন মানদণ্ডকে অবজ্ঞা করে চলেছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এশিয়ার ডেপুটি ডিরেক্টর ফিল রবার্টসন বিবিসিকে বলেন, এমন একটি সময়ে রায় দেয়া হলো, যখন পুরো বিশ্ব মহামারীতে জীবন বাঁচানো সুরক্ষার জন্য লড়াই করছে। শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড নিষ্ঠুর অমানবিক। এটিকে বিলুপ্ত করা উচিত। সম্প্রতি নাইজেরিয়ায় জুম ভিডিও কলের মাধ্যমে একটি মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া হয়েছে।

বিবিসি

 

 

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন