মঙ্গলবার | জুন ০২, ২০২০ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

নভেল করোনাভাইরাস মোকাবেলা

দেশে সেলফোন অপারেটরদের উদ্যোগ

সুকান্ত হালদার

দেশে নভেল করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা মোকাবেলার অংশ হিসেবে গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার, যা কয়েক ধাপে বাড়িয়ে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। ভাইরাসটির সংক্রমণ এড়াতে মানুষকে বাসার বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কার্যত ঘরবন্দি মানুষ বিভিন্ন প্রয়োজনে ফোন কল ইন্টারনেট ডাটা ব্যবহার করছে। পরিস্থিতিতে গ্রাহকদের জন্য নানা সুযোগ-সুবিধা নিয়ে হাজির হয়েছে দেশের বেসরকারি তিন সেলফোন অপারেটর গ্রামীণফোন, রবি আজিয়াটা বাংলালিংক। 

গ্রামীণফোন সূত্রমতে, সরকার নির্ধারিত হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় যেসব স্বাস্থ্যসেবা কর্মী কাজ করছেন, তাদের জন্য ৫০ হাজার পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) সরবরাহ করা হয়েছে। করোনা পরীক্ষার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নির্ধারিত ১০ হাজার টেস্টিং কিট সরবরাহ করা হয়েছে। সরকার সংসদ টিভিতে যেসব শিক্ষা কার্যক্রম ক্লাস নিচ্ছে, তা আরো বেশি শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছাতে গ্রামীণফোন বায়োস্কোপে প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আইসিটি মন্ত্রণালয় এটুআইয়ের সঙ্গে বাংলাদেশ চ্যালেঞ্জ নামে একটি ম্যাপিং কার্যক্রম শুরু করেছে। দেশের তরুণরা ঘরে বসে আশপাশের ইমার্জেন্সি সেবাগুলোর অবস্থান গুগল ম্যাপে ইনপুট দিতে পারবে। এর মাধ্যমে সাধারণ মানুষ জরুরি সেবাকেন্দ্রগুলোর অবস্থান সহজে খুঁজে নিতে পারবে। 

বিষয়ে গ্রামীণফোনের হেড অব এক্সটার্নাল কমিউনিকেশন মুহাম্মদ হাসান বণিক বার্তাকে বলেন, নভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধের মূল প্রতিষেধক হলো মানুষকে সচেতন করা। গ্রামীণফোন প্রথম থেকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও), ইউনিসেফ, এটুআই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে যৌথভাবে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছে। সচেতনতার অংশ হিসেবে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পৌঁছে দিয়ে আসছে। এমনকি মানুষকে ঘরে থাকতে উদ্বুদ্ধ করতে নেটওয়ার্ক সিননিফাইয়ার পরিবর্তন করেছে।

তিনি বলেন, গ্রামীণফোন আরো কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে। পোস্ট পেইড গ্রাহকদের জন্য বিল প্রদানের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে, মাইজিপি অ্যাপের মাধ্যমে গ্রাহকরা ক্রেডিট নিয়ে ইন্টারনেট প্যাক কিনতে পারছেন, ভয়েস গ্রাহকরা বেশি সময়ের জন্য ইমার্জেন্সি ব্যালান্স নিতে পারবেন, স্টার গ্রাহকদের সুবিধা অব্যাহত থাকবে, ইন্টারনেটের সাপ্তাহিক মাসিক প্যাকেজগুলোতে ফ্রি এবং বোনাস অফার দেয়া হয়েছে। আগে ৯৯৯ টাকায় ৬০ গিগাবাইট ইন্টারনেট প্যাকেজ ছিল, এখন একই দামে ১২০ গিগাবাইট ডাটা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া ৪৯৯ টাকায় ২০ গিগাবাইটের জায়গায় এখন ৪০ গিগাবাইট ডাটা মিলছে। 

সেলফোন অপারেটর রবি ডিজিটাল করোনা আপডেট নামে একটি সার্ভিস চালু করেছে। এছাড়া কভিড-১৯ প্রাইমারি সেলফ টেস্ট নামে আরেকটি সেবা চালু করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, নির্দিষ্ট কিছু প্রশ্নের উত্তর দিলে কেউ করোনায় আক্রান্ত কিনা, তা জানা যাবে।

রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম জানান, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, পিটিডি, এটুআই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সমন্বয়ে দেশের প্রথম জাতীয় ডাটা অ্যানালিটিকস প্লাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। আমরা আমাদের আরো একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম কাজে লাগাচ্ছি, তা হলো ডিজিটাল শিক্ষা। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার পর বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিন লাইভ ক্লাস সম্প্রচার করছে দেশের বৃহত্তম অনলাইন স্কুল রবি-টেন মিনিট স্কুল। এছাড়া রবি-টেন মিনিট স্কুল ডিজিটাল শিক্ষার কনটেন্ট তৈরিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরকে সহায়তা করছে, যা শিগগিরই সংসদ টিভির মাধ্যমে সম্প্রচারিত হবে।

তিনি বলেন, আমরা বিনা মূল্যে ফোন কল ইন্টারনেট সুবিধা দিচ্ছি। ঘরে বসে অফিসের কাজকর্ম পরিচালনার সুবিধার্থে আমরা বেশ কয়েকটি সাশ্রয়ী ভিডিও কনফারেন্সিং প্যাকের অফার ঘোষণা করেছি। গ্রাহকদের সুবিধার্থে বিভিন্ন বান্ডেল প্যাকেজের মেয়াদ বাড়িয়ে ৬০ থেকে ৯০ দিন করা হয়েছে। আমাদের কোম্পানির সাত হাজারের বেশি ডিএসআরকে (ডিস্ট্র্রিবিউশন সেলস রিপ্রেজেনটেটিভ) মৌলিক খাদ্য সুরক্ষা প্রদান করা হচ্ছে। দরিদ্রদের সহায়তার জন্য তহবিল গঠনের চেষ্টা এবং অনুদান হিসেবে সরকারকে টেস্টিং কিট প্রদান করা হয়েছে। করোনা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য আমরা রবির সোস্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম এবং করপোরেট রেসপন্সিবিলিটি ফেসবুক প্লাটফর্ম—‘#কমনসেন্স- সংশ্লিষ্ট কনটেন্ট প্রচার করছি। রবি ঢাকা চট্টগ্রামের বেশ কয়েকটি হাসপাতালে পিপিই সরবরাহ করেছে। দেশের ১০টি গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়ে স্টেশনে স্থাপিত রবির ওয়াটার প্লান্টগুলোতে ওয়াটারএইড বাংলাদেশের সহযোগিতায় হাত ধোয়া ক্যাম্পেইন চালু করা হয়েছে।

অন্যদিকে আমার টিউন সার্ভিসে করোনা সম্পর্কিত সচেতনতামূলক তথ্য দিচ্ছে বাংলালিংক। এরই মধ্যে অধিকাংশ ডাটা প্যাকেজের দাম ৪০ শতাংশ কমানোর তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বাংলালিংকের স্বাস্থ্যসেবা অ্যাপ ডাক্তার ভাই ব্যবহারে আগে চার্জ পরিশোধ করতে হতো, যা এখন বিনা মূল্যে ব্যবহারের সুবিধা দিচ্ছে। বাংলালিংকের বিনোদনমূলক অ্যাপ টফি গ্রাহকদের জন্য ফ্রি করে দেয়া হয়েছে। 

বাংলালিংকের সিনিয়র ম্যানেজার (কমিউনিকেশন) অঙ্কিত সুরেকা বণিক বার্তাকে বলেন, করোনাসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সেবার নম্বরগুলোতে (টোল ফ্রি) বিনা মূল্যে কল করার সুযোগ দেয়া হচ্ছে। করোনা ডট গভ ডট বিডি আইইডিসিআরসহ তিনটি ওয়েবসাইটে প্রবেশের ক্ষেত্রে বাংলালিংক গ্রাহকদের ডাটার জন্য ব্যয় হবে না। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে সেফটি অ্যাওয়ারনেস পোস্টগুলো শেয়ার করা হচ্ছে।

বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী, গত ফেব্রুয়ারি শেষে দেশে সেলফোন সংযোগ সংখ্যা ১৬ কোটি ৬১ লাখ ছাড়িয়েছে। আর ইন্টারনেট সেবার সংযোগ রয়েছে কোটি ৯৯ লাখ ৮৪ হাজার। এর মধ্যে সেলফোন অপারেটরদের ইন্টারনেট সেবার আওতায় থাকা সংযোগই কোটি ৪২ লাখ ৩৬ হাজার।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন