মঙ্গলবার | জুন ০২, ২০২০ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

টেলিকম ও প্রযুক্তি

কভিড-১৯

কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় নিজস্ব ল্যাব বানাবে অ্যামাজন

বণিক বার্তা ডেস্ক

বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়ে সৃষ্ট রোগ কভিড-১৯ আক্রান্ত মৃত্যের সংখ্যা বাড়ছে। ভয়াবহ পরিস্থিতিতেও মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহে কাজ করে যাচ্ছেন -কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনের কর্মীরা। ঝুঁকি নিয়ে কাজ চালিয়ে যাওয়া কর্মীদের স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণ স্বাস্থ্যনিরাপত্তা নিশ্চিতে নিজস্ব করোনাভাইরাস পরীক্ষার ল্যাব বানানোর ঘোষণা দিয়েছে অ্যামাজন। খবর বিবিসি।

বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যেও কার্যক্রম চালু রাখা এবং কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে স্পষ্ট কোনো বক্তব্য না থাকায় সমালোচিত হচ্ছিল অ্যামাজন। স্বাস্থ্যনিরাপত্তা ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ করায় এর আগে নিউইয়র্ক ওয়্যারহাউজের এক কর্মীকে চাকরিচ্যুত করেছিল প্রতিষ্ঠানটি। তবে যুক্তরাষ্ট্রে অ্যামাজনের ৫০টির বেশি স্থাপনায় কভিড-১৯ আক্রান্ত কর্মী শনাক্ত হওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে প্রতিষ্ঠানটি। এর কোনো কোনো স্থাপনায় একাধিক কর্মী আক্রান্ত হওয়ার খবরও মিলেছে।

বিবৃতিতে অ্যামাজন জানায়, তারা ক্রমবর্ধমান সক্ষমতার নভেল করোনাভাইরাস পরীক্ষার ল্যাব বানাতে একটি দল গঠন করেছে। কভিড-১৯ মোকাবেলার অংশ হিসেবে অ্যামাজনে অভ্যন্তরীণ দেড় শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, পরিচালন কেন্দ্র মুদি দোকানগুলোতে কর্মীদের মাস্ক দেয়া হচ্ছে এবং কর্মীদের তাপমাত্রা মাপা হচ্ছে। পরবর্তী ধাপে সব কর্মীকে নিয়মিত পরীক্ষা করা হবে, যাদের লক্ষণ নেই তাদেরও। বিশ্বজুড়ে সব শিল্প খাতে নিয়মিত পরীক্ষার মাধ্যমে মানুষকে নিরাপদ রাখার পাশাপাশি অর্থনীতি সচল রাখা সম্ভব।

অ্যামাজন স্বীকার করেছে, নভেল করোনাভাইরাস পরীক্ষার সুযোগ সীমিত। তাই নিজস্ব ল্যাব বানাতে কর্মীদের একটি দল গঠন করা হয়েছে। নভেল করোনাভাইরাস শনাক্তের ল্যাব বানাতে যে উপকরণ প্রয়োজন আমরা সেগুলো জোগাড় করতে শুরু করেছি এবং শিগগিরই আমাদের সামনের দিকের কিছু কর্মীর পরীক্ষা শুরু করতে পারব। প্রাসঙ্গিক সময়ে আমরা কত দূর এগোতে পারব তা নিশ্চিত নই, তবে আমরা মনে করি চেষ্টা চালিয়ে যাওয়াটা যথেষ্ট এবং যা শিখব তা অন্যের সঙ্গে শেয়ার করতে আমরা প্রস্তুত থাকব।

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন