মঙ্গলবার | মে ২৬, ২০২০ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

টকিজ

‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কাজ করব না’

ছোট পর্দার প্রিয় মুখ ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর। বর্তমান পরিস্থিতিতে অন্য তারকাদের মতো তিনিও ঘরে সময় কাটাচ্ছেন। দীর্ঘদিন পর যেন কিছুটা সময় পেয়েছেন তিনি। তাই এখন পরিবারের সদস্যদের সময় দেয়ার পাশাপাশি ফোন কিংবা সামাজিক মাধ্যমে খোঁজ নিচ্ছেন পুরনো বন্ধুদের। সংকটে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর কথাও বললেন অভিনেত্রী। বর্তমান পরিস্থিতি এবং তার কাজকর্মসহ নানা বিষয় নিয়ে টকিজের সঙ্গে কথা হয় ঊর্মিলার। আলাপ করেছেন রাইসা জান্নাত

ব্যক্তিগত জীবনে সাহসী প্রকৃতির হলেও নভেল করোনাভাইরাসের কারণে যেন খানিকটা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন ঊর্মিলা। তার মুখ থেকেই শোনা যাক সে কথা। তিনি বলেন, সময়ে একটি বড় আতঙ্কের নাম করোনা। আমি একটু সাহসী। তবে পরিস্থিতিতে নিজেও ভয় পেয়ে গেছি। তবে নিজের চেয়ে মাকে নিয়েই ভয়টা বেশি বলে জানালেন অভিনেত্রী। তার কারণ নভেল করোনাভাইরাসে বয়স্ক ব্যক্তিদের মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি। বললেন, মার বয়স হয়েছে এবং তিনি একজন ক্যান্সারের রোগী। কারণে অনেক বেশি সচেতন থাকতে হচ্ছে। মাকে নিয়েই বেশি চিন্তিত।

এত দীর্ঘ সময় কাজ বন্ধ করে কখনই বসে থাকেননি ঊর্মিলা। সময়গুলো কীভাবে কাটাচ্ছেন জানতে চাইলে বলেন, অবসরে তিনি বইকে করেছেন সঙ্গী। এক সময় প্রচুর বই পড়ার অভ্যাস ছিল তার। কিন্তু কাজের ব্যস্ততার কারণে বই পড়ার ফুরসতই মিলত না। এখন খানিকটা সময় পেয়েছেন। তাই বইয়ের তাক থেকে পুরনো বই বের করে আবার যেন ঝালিয়ে নিচ্ছেন সেগুলো। পুরনো বইয়ের পাতার ভাঁজে ভাঁজে লুকিয়ে আছে ছোটবেলার অনেক স্মৃতি। সেসব স্মৃতিও যেন রোমন্থন করছেন এই থমকে যাওয়া সময়ে।


 

তবে সবচেয়ে গুরুত্বের সঙ্গে যে কাজটি করছেন তা হলো, পরিবারকে যথেষ্ট সময় দিচ্ছেন। তার মতে, পরিবারকে সময় না দেয়া অনেক বড় সমস্যার একটি কারণ। নৈতিক অবক্ষয়সহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার পেছনের একটি কারণ হিসেবে পরিবারকে সময় না দেয়ার বিষয়টিকে দায়ী করলেন ঊর্মিলা। সময়টাকে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কাটানোর একটি বড় সুযোগ বলে মনে করছেন তিনি। নিজে পরিবারকে সময় দিচ্ছেন, তাই অন্যদেরও পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর আহ্বান জানালেন অভিনেত্রী। 

পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি বন্ধু-বান্ধবদের খোঁজ-খবর নিতেও ভুললেন না ঊর্মিলা। কাজের চাপে পুরনো বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে খুব বেশি যোগাযোগ করা হয়ে ওঠে না। তাই সুযোগে ফোনে, সামাজিক মাধ্যমে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছি, খোঁজ-খবর নিচ্ছি’—তিনি বলেন।  

পাঠকদের উদ্দেশে নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্কতামূলক বার্তা দিতে গিয়ে বিষয়টিকে হালকাভাবে না নেয়ার কথা জানালেন ঊর্মিলা কর। তার ভাষ্যে, অনেকেই বিষয়গুলো নিয়ে ট্রল করছেন। এগুলো দেখে মানসিকভাবে এক ধরনের খারাপ লাগা কাজ করছে। অভিনেত্রী নিজে ঘরে অবস্থান করছেন। অন্যদেরও বাসায় থাকার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, আমার যারা পাঠক এবং ভক্ত রয়েছেন, তাদের উদ্দেশে বলব, আমি বাসায় আছি। নিজের অন্যদের কথা ভেবে আপনারাও ঘরে থাকুন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন। আর সরকারি নির্দেশনাসহ, চিকিৎসকরা অনেক পরামর্শ দিচ্ছেন, সেগুলো মেনে চলুন। 

নভেল করোনাভাইরাসের কারণে অনেক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। অধিকাংশ মানুষ ঘরবন্দি হয়ে আছেন। এতে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। যাদের ঘর থেকে বের না হলে জীবিকা নির্বাহ করা কষ্টকর। তাদের পাশে দাঁড়ানোর কথা বলেন অভিনেত্রী। বিষয়ে তার বক্তব্য, এসব খেটে খাওয়া মানুষের পাশে আমাদের দাঁড়ানো উচিত। নিজ নিজ জায়গা থেকে যতটুকু পারা যায়, তাদের সাহায্য করা দরকার। আশা করছি খুব দ্রুতই আমরা পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে পারব।

এদিকে নভেল করোনাভাইরাসের কারণে সব ধরনের শুটিং বন্ধ রাখা হয়েছে। করোনার প্রভাব পড়ার আগেই ঊর্মিলা দু-একটি ঈদের নাটকের কাজ করেছেন বলে জানালেন। বিষয়ে তিনি বলেন, সর্বশেষ আজাদ আবুল কালাম ভাইয়ের ছায়াকাব্য নাটকের কাজ করেছি। এতে আমার বিপরীতে দেখা যাবে রওনক হাসানকে। এছাড়া ধারাবাহিক ফান ফ্যাক্টরি টু নাটকের কাজ ছিল সুন্দরবনে। নিজেকে নিরাপদ রেখেই কাজটি করেছি। এখন পরিস্থিতি পুরোপুরি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত কাজ করতে চাই না। এছাড়াও বেশকিছু কাজের কথা ছিল। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কারণে সব বাতিল করেছেন বলে জানান ঊর্মিলা কর।

 

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন