বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা

রক্তরসে ভরসা বিজ্ঞানীদের

বণিক বার্তা ডেস্ক

প্লাজমা ট্রান্সফিউশন করে এর আগে অনেক মহামারীর মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছেন চিকিৎসকরা। নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের খুব সামান্য অংশের ওপর সে পদ্ধতি প্রয়োগ করে সাফল্য পাওয়া গেছে বলে মার্কিন চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের মেডিসিন অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জেফরি পি হেন্ডারসন বলেছেন, যেকোনো ভাইরাল ইনফেকশনের ক্ষেত্রে পদ্ধতি প্রয়োগ করে চিকিৎসা করা হয়েছে। যেমন হাম, পোলিও, ইনফ্লুয়েঞ্জা। টিকা বা প্রতিষেধক আবিষ্কারের আগেও প্লাজমা ট্রান্সফিউশন প্রয়োগ করেছেন আমাদের পূর্বসূরিরা। একই বিভাগের আরেক চিকিৎসাবিজ্ঞানী ব্রেন্ডা গ্রসম্যান বলছেন, সুস্থ রোগীর দেহ থেকে বেশ অনেকটা পরিমাণ রক্ত সংগ্রহ করতে হবে। তারপর তার দুটো অংশকে পৃথক করে নিতে হবে। প্লাজমা অংশটি অসুস্থ রোগীর দেহে প্রয়োগ করার পর কয়েকদিনে ফল মিলবে। পদ্ধতি সহজ, কিন্তু প্রয়োগের ক্ষেত্রটা একটু কঠিন। কারণ, আপনি জানেন না যে কার রক্তে কতটা প্লাজমা থাকবে, সেই পরিমাণ প্লাজমা অসুস্থ ব্যক্তির জন্য যথাযথ কিনা। পরিমাণের ব্যাপারটা এখনো পরীক্ষামূলকভাবেই ঠিক করতে হয়। ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিন

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন