মঙ্গলবার | জুন ০২, ২০২০ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

শিল্প বাণিজ্য

গাজীপুরে ছুটির দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, গাজীপুর

গাজীপুরের শ্রীপুরে কয়েকটি কারখানায় ছুটির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা। আজ শনিবার সকালে শ্রমিকরা কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেন। একপর্যায়ে তারা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধও করেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। শ্রমিকদের দাবি অনুযায়ী, কারখানাগুলো ৪ এপ্রিল ছুটি ঘোষণা করলে শ্রমিকরা ফিরে যান।

তবে পোশাক শ্রমিকরা দাবি করেন, গুলশান স্পিনিং মিলস ও ইয়ার্ণ মিলস কারখানা কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েকজন শ্রমিকের জোর করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছে। একই সঙ্গে তাদের আইডি কার্ড জমা নিয়ে কারখানা থেকে বের করে দিয়েছে। একই অভিযোগ গাজীপুর সদর উপজেলার জাহিন টেক্সটাইল মিলস লিমিটিডের শ্রমিকরাও।

কারখানাটির সুইং অপারেটর মাহমুদা বেগম জানান, গত বুধবার বিকেলে কারখানায় কাজ চলাকালে কিছু শ্রমিককে উৎপাদন ব্যবস্থাপক (পিএম) ডেকে নিয়ে যায়। পরে পিএম একজন একজন করে তার কক্ষে নিয়ে জোর করে একটি কাগজে স্বাক্ষর নেয় এবং তাদের কারখানার আইডি রেখে বাইরে বের করে দেয়।

একই কথা বলেন সুইং সেকশনের সহকারী (হেলপার) শারমিন আক্তার, চামেলী। তারা বলেন, কোন কারণ না জানিয়ে এবং বেতন না দিয়ে কারখানা থেকে তাদের কয়েক শ্রমিককে বের করে দেয়া হয়।

কারখানার পিএম মো. রফিকুল ইসলামকে একাধিকবার মোবাইল ফোনে করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে এ ব্যাপারে কারখানার জিএম এখলাছুর রহমান মুকুল জানান, শ্রমিকদের কাছ থেকে জোর করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর ও কার্ড নেয়ার অভিযোগটি সঠিক নয়। তারা কয়েকজন মূলত ছুটি দাবি করে কারখানায় অসন্তোষ সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন।

গাজীপুর শিল্পপুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান, একইদিন সকালে করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত ভবানীপুর এলাকায় পলমল গ্রুপের সাফা সোয়েটার কারখানার শ্রমিকরা ছুটির দাবিতে বিক্ষোভ এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে। পরে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ হয়।

তিনি জানান, একই দাবিতে এদিন শ্রীপুর গুলশান স্পিনিং মিলস ও এ এ ইয়ার্ণ মিলস কারখানার শ্রমিকারা রাস্তায় নেমে আসে। তাদেরও ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি দেয়া হয়েছে। পরে আন্দোলন বন্ধ করে শ্রমিকরা চলে গেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন