বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

খবর

ঝুঁকিতে রেলকর্মী ও যাত্রীরা

টিকিটের টাকা ফেরত দিতেই খোলা থাকছে স্টেশন!

সুজিত সাহা চট্টগ্রাম ব্যুরো

কার্যত বৃহস্পতিবার থেকে সারা দেশ লকডাউনে। ২৪ মার্চ বিকালের পর সারা দেশে আর কোনো যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করেনি। কিন্তু প্রায় ১০ দিন আগেই অগ্রিম বিক্রি করা ট্রেনের টিকিটের মূল্য ফেরত দিতে খোলা রাখা হচ্ছে রেল স্টেশনের কাউন্টারগুলো। এতে টিকিট কেনা সাধারণ মানুষের পাশাপাশি রেলের বুকিং সহকারীরাও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিতে রয়েছেন। 

নিয়ম অনুযায়ী ১০ দিন আগে রেলওয়ে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করে। এর মধ্যে যাত্রা শুরুর ন্যূনতম পাঁচদিন আগে কেনা টিকিট কাউন্টারে জমা দিয়ে সম্পূর্ণ টাকা ফেরত পাবেন যাত্রীরা। তবে যাত্রা শুরুর তিনদিন আগে পর্যন্ত যেকোনো টিকিটের কোনো অর্থ ফেরত পাবেন না। এছাড়াও পাঁচদিনের পর নির্দিষ্ট মেয়াদে অর্থ কর্তন সাপেক্ষে টিকিট ফেরত দিতে পারবেন যাত্রীরা।

২৪ মার্চ ঘোষণা আসার পর থেকে রেলওয়ে তাদের সব ট্রেনের টিকিট বিক্রি কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। যদিও ততক্ষণে ২৪ মার্চ থেকে পরবর্তী ১০ দিনের যাত্রীবাহী ট্রেনগুলোর টিকিট অনলাইন রেলস্টেশনের কাউন্টারে উন্মুক্ত হয়ে যায়। রেল কর্তৃপক্ষ ওইদিন থেকেই বিক্রি হওয়া টিকিটের মূল্য ফেরত দেয়া শুরু করে। এর মধ্যে ২৪ ২৫ মার্চ বিপুলসংখ্যক যাত্রী টিকিটের টাকা ফেরত নিয়ে গেলেও এখনো চালু রাখা হয়েছে টিকিট বিক্রি কার্যক্রম। এতে টিকিট বিক্রির টাকা ফেরত দেয়ার স্বার্থে স্টেশন বুকিং কাউন্টারগুলো খোলা রাখা হচ্ছে। এতে যাত্রী বুকিং সহকারীদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। 

দেশের বেশ কয়েকটি স্টেশনের ম্যানেজার বুকিং সহকারীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিক্রি হওয়া টিকিটের টাকা ফেরত দিতে কাউন্টারগুলো সীমিত পরিসরে খোলা রাখা হচ্ছে। এজন্য বুকিং সহকারীদের ঝুঁকি নিয়ে স্টেশনে আসতে হচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রেলের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বণিক বার্তাকে বলেন, কয়েক মাস ধরে রেলের যাত্রী পরিবহন খাত থেকে আয় কমেছে। সাম্প্রতিক লকডাউন ট্রেন বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে রাজস্ব আয়ে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগে বিক্রি হওয়া টিকিটের মূল্য ফেরত কর্মসূচির মাধ্যমে রেলওয়ে বিনিয়োগ ছাড়াই রাজস্ব আয় করতে চাইছে। লকডাউন সময়সীমার মধ্যে অনেকেই টিকিটের মূল্য ফেরত নিতে আসবেন না। এতে রেলওয়ে ট্রেন না চালিয়েও আয় করতে পারবে। মূলত অনৈতিক উদ্দেশ্যেই রেলওয়ে লকডাউনের সময়ও টিকিট ফেরতের কৌশল নিয়েছে বলে মনে করেন তিনি। 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন