বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

শেয়ারবাজার

ছয় কোম্পানির পর্ষদ সভা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাস-সংক্রান্ত পরিস্থিতিতে পূর্বনির্ধারিত পর্ষদ সভা স্থগিত করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ছয় কোম্পানি। এগুলো হলো বাংলাদেশ ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোড লিমিটেড, লংকাবাংলা ফিন্যান্স লিমিটেড, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, তাকাফুল ইসলামী ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এবি ব্যাংক লিমিটেড। কোম্পানিগুলোর পর্ষদ সভার নতুন তারিখ পরে জানিয়ে দেয়া হবে।

বিডি ওয়েল্ডিং: কোম্পানিটির পর্ষদ সভা আজ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। এতে ২০১৮ ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করার কথা ছিল। সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের নির্দেশে দুই বছরের পরিচালনা পর্ষদ সভা এক সঙ্গে করার সিদ্ধান্ত নেয় কোম্পানিটি।

লংকাবাংলা ফিন্যান্স: কোম্পানিটির পর্ষদ সভা ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) লংকাবাংলা ফিন্যান্সের সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৫২ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২৬ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৮ টাকা পয়সা।

ইস্টার্ন ব্যাংক: ব্যাংকটির পর্ষদ সভা ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) ব্যাংকটির সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে টাকা ৮৩ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল টাকা ৪৬ পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৮৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৯২ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৯ টাকা ৮১ পয়সা।

তাকাফুল ইসলামী ইন্স্যুরেন্স: ৩১ মার্চ কোম্পানিটির পর্ষদ সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) তাকাফুল ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ইপিএস হয়েছে ৯৪ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৯৭ পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিকে ইপিএস হয়েছে ৪০ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪২ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৬ টাকা ৫২ পয়সা।

এশিয়া ইন্স্যুরেন্স: কোম্পানিটির পর্ষদ সভা ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে টাকা ৩৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল টাকা ২৮ পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ইপিএস হয়েছে ৪৪ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩৭ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১৯ টাকা ৩৫ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৮ টাকা ৭৬ পয়সা।

এবি ব্যাংক: ব্যাংকটি পর্ষদ সভা ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সর্বশেষ সমাপ্ত হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) ব্যাংকটির সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ১৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৪১ পয়সা। তৃতীয় প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ৩১ টাকা ৬৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩২ টাকা পয়সা।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন