বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

টকিজ

কোয়ারেন্টিনে বই পড়ার পরামর্শ কঙ্গনার

ফিচার ডেস্ক

নভেল করোনাভাইরাসের কারণে বিনোদনজগতের তারকারা এখন ঘরে অবস্থান করছেন। অবসর সময়ে কে কী করছেন, সেগুলোর ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করছেন অনেকেই। বলিউডের স্পষ্টভাষী অভিনেত্রী হিসেবে সবার আগে কঙ্গনা রানাওয়াতের নামটিই চলে আসে। এবার অভিনেত্রী কোয়ারেন্টিনের সময় ভালোভাবে কাটানোর জন্য বই পড়ার পরামর্শ দিলেন তার ভক্তদের। সঙ্গী হিসেবে দ্য কাইট রানার, রাজযোগ, দি আলকেমিস্টসহ আরো অনেক বই রাখার কথা বলেছেন। বইগুলো কোয়ারেন্টিনের সময় সঙ্গ দেবে এবং ইতিবাচক মনোভাব তৈরিতে সাহায্য করবে বলে মনে করেন কুইনখ্যাত অভিনেত্রী।

মনিকর্ণিকা:দ্য কুইন অব ঝাঁসি ছবির অভিনেত্রী কঙ্গনা বলেছেন, প্রত্যেকে স্ট্রিমিং সাইটগুলোয় বিভিন্ন সিরিজ ছবি দেখতে ব্যস্ত। কিন্তু তার কাছে বিভিন্ন ধরনের বই আছে, যেগুলো অবশ্যই পড়া দরকার।

জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়ার অভিনেত্রী খালেদ হোসেইনীর দ্য কাইট রানার বইটি দিয়ে শুরু করেন। এরপর নিকোলাস স্পারকসের উপন্যাস দ্য নোটবুক পড়ার কথা বলেন। তার মতে, ছবি দেখার চেয়ে বই পড়া নাকি অনেক ভালো।

বই পড়া প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, অনেকেই মনে করেন, দি আলকেমিস্ট দ্য ফাউন্টেনহেড বইগুলো নতুনদের জন্য। কিন্তু তিনি কথা মানতে রাজি নন। বরং বইগুলোকে তিনি তার মাস্ট রিড তালিকায় যুক্ত করেছেন। স্বামী বিবেকানন্দের রাজযোগ বইটি সবার পড়া উচিত বলে মনে করেন কঙ্গনা। এরপর তিনি আরো কিছু বইয়ের নাম যুক্ত করে বলেন, ছবি সম্পাদনা প্রক্রিয়ার ওপর লেখা ইন দ্য ব্লিঙ্ক অব অ্যান আই এবং সিগমন্ড ফ্রয়েডের দি ইন্টারপ্রিটেশন অব ড্রিমস পড়ার জন্য খুব ভালো বই। লেখক ব্রুনো বেটেলহেইমের দ্য ইউজেস অব এনচ্যান্টমেন্ট, ডেভিড লিঞ্চের ক্যাচিং দ্য বিগ ফিশ, অ্যারিস্টোটলের পোয়েটিকসসহ আরো কিছু বইয়ের নাম উল্লেখ করেছেন তিনি।

কঙ্গনা এখন বাল্মীকির রামায়ণ পড়ছেন বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম পিংকভিলাকে জানিয়েছেন। যেহেতু তিনি অযোধ্যার ওপর একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করবেন। এসব বইয়ের তালিকায় তিনি ভাগবত্ গীতার কথা উল্লেখ করেননি। তার কারণ হিসেবে অভিনেত্রী বলেন, এটি কোনো বই নয়, বরং এটা এক ধরনের যন্ত্র। নতুন পাঠকরা বইটি পড়ে পুরোপুরি বুঝতে সক্ষম হবেন না বলেও জানান। থালাইভি অভিনেত্রী বইগুলোকে কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় পড়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন।

সূত্র: পিংকভিলা

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন