বুধবার | মে ২৭, ২০২০ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

পণ্যবাজার

চাল

ছয় মাসের সর্বোচ্চ থেকে দাম কমল থাইল্যান্ডে

বণিক বার্তা ডেস্ক

থাইল্যান্ডজুড়ে তীব্র খরা চলছে। প্রতিকূল আবহাওয়ায় দেশটিতে ব্যাহত হয়েছে ধান-চাল উৎপাদন। বাজারে কমে এসেছে সরবরাহ। পরিস্থিতিতে দেশটিতে রফতানিযোগ্য চালের দাম ছয় মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে উঠেছিল। তবে নভেল করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউনের মুখে রফতানি চাহিদা কমে আসায় দেশটিতে চালের দাম রেকর্ড অবস্থান থেকে কমে এসেছে। খবর রয়টার্স।

সর্বশেষ সপ্তাহে থাইল্যান্ডের বাজারে রফতানিযোগ্য শতাংশ ভাঙা চাল টনপ্রতি ৪৬৮-৪৯৫ ডলার বিক্রি হয়েছে। এর আগের সপ্তাহে খাদ্যপণ্যটির দাম ছয় মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে উঠেছিল। ওই সময় প্রতি টন শতাংশ ভাঙা চাল ৪৮০-৫০৫ ডলারে বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশটিতে রফতানিযোগ্য চালের দাম টনে সর্বোচ্চ ১২ ডলার কমেছে।

ব্যাংককভিত্তিক ট্রেডারার জানান, খরার কারণে উৎপাদন সরবরাহ ব্যাহত হওয়ায় বাজারে চালের জোগান তুলনামূলক কম। কারণে কয়েক সপ্তাহ ধরেই দেশটিতে খাদ্যপণ্যটির দাম বাড়তির দিকে ছিল। ধারাবাহিকতায় থাইল্যান্ডে চালের দাম ছয় সপ্তাহের সর্বোচ্চে ওঠে। তবে করোনাভাইরাসের কারণে লকডাইন চলমান থাকায় খাদ্যপণ্যটির রফতানি স্থবির হয়ে এসেছে। রফতানি চাহিদায় স্থবিরতা দাম কমিয়েছে চালের।

উল্লেখ্য, থাইল্যান্ড বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ চাল রফতানিকারক দেশ। মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) ফরেন এগ্রিকালচারাল সার্ভিসের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে সব মিলিয়ে ৭৫ লাখ টন চাল রফতানি হয়েছে, যা আগের বছরের তুলনায় দশমিক ৮২ শতাংশ কম। ২০১৮ সালে থাইল্যান্ড মোট ৭৫ লাখ ৬২ হাজার টন চাল রফতানি করেছিল।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন