বৃহস্পতিবার | সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০ | ৯ আশ্বিন ১৪২৭

আন্তর্জাতিক ব্যবসা

সরকারের সহায়তা চেয়েছে ভারতের এয়ারলাইনস শিল্প

বণিক বার্তা ডেস্ক

নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণে বিপর্যস্ত বৈশ্বিক অর্থনীতির পর আকাশসেবা শিল্প মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে রয়েছে অবস্থায় কর্মচারীদের বেতন-ভাতা প্রদান করতে সরকারের সহায়তা চেয়েছে ভারতের এয়ারলাইনস খাতের প্রতিষ্ঠানগুলো বিশ্বের অন্য দেশগুলোর মতো ভারতেও প্রতিকূল পরিস্থিতির মুখে পড়েছে শিল্প খবর বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড

দেশটির এয়ারলাইনস শিল্পের শীর্ষ নির্বাহী কর্মকর্তারা সরকারের কাছে সহায়তা প্রার্থনা করেছে আগামী তিন মাসের বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য সরকারের কাছে ৫০ শতাংশ অর্থ চেয়ে অনুরোধ জানানো হয়েছে দেশটির এয়ার শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের পাশাপাশি যাত্রীসংখ্যা কমতে থাকায় ব্যবসায় মন্দা পরিস্থিতি বিরাজ করছিল

বিদ্যমান পরিস্থিতিতে দেশটির শ্রম মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় একটি পরামর্শপত্র জারি করেছে এয়ারলাইনস শিল্পের সরকারি বেসরকারি পর্যায়ের কর্মচারীদের উভয়ের প্রতি বিশেষ বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছে সরকার নিয়মিত চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীদের মজুরি কর্তন কিংবা চাকরি থেকে সরিয়ে না দেয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে

তবে এযারলাইনস শিল্পের নির্বাহী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিদ্যমান অবস্থায় বেতন-ভাতা প্রদান করা খুব কঠিন হয়ে যাবে টিকিট বিক্রির অর্থ থেকে কর্মচারীদের বেতন-ভাতা সংগ্রহ করা হয় বলে জানানো হয় কিন্তু যাত্রী সংকটের কারণে খাত থেকে আয় বন্ধ থাকায়, বেতন-ভাতা প্রদানে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়েছে

এয়ারলাইনস শিল্পের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শিল্পের প্রতিকূল অবস্থা সহসাই কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে না দেশটিতে ফ্লাইট চলাচল পুনরায় শুরু হবে আগামী ২০ এপ্রিল চলমান পরিস্থিতিতে যাত্রী চাহিদা একেবারেই কমে গিয়েছে ফলে চলাচল শুরু হওয়ার পর পরই মন্দাবস্থা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে না এয়ারলাইনস শিল্পে ব্যবসা পুনরায় শুরুর পরও স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরে পেতে আরো ছয় মাস সময় প্রয়োজন হবে বলে জানা গেছে মূলত সাম্প্রতিক সময়ের তুলনায় ভবিষ্যৎ পরিস্থিতি কঠিন হবে বলে মনে করা হচ্ছে

ভারত সরকারের হিসাব অনুযায়ী দেখা যায়, আগামী দুই মাসে এয়ারলাইনস শিল্প মাত্র ৩০ শতাংশ যাত্রীবাহী বহর পরিচালনা করতে পারবে দেশটির বেসরকারি উড়োজাহাজ পরিষেবা প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মকর্তা জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে নগদ অর্থ সরবরাহ একদম শূন্য কিন্তু ব্যয় নির্বাহ একই রকম রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি পরিস্থিতিতে সরকারের পদক্ষেপের দিকে তাকিয়ে রয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকারকে নাজুক পরিস্থিতির কিছুটা দায় মেটাতে হবে বলে এয়ারলাইনস শিল্পের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন

তবে ইন্ডিগো এয়ারলাইনস জানিয়েছে, ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ থাকলেও তারা কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করবে প্রতিষ্ঠান ছাড়া বাকিরা জানিয়েছে, বেতন-ভাতা পরিশোধের মতো অর্থ তাদের কাছে নেই

 

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন