বৃহস্পতিবার| এপ্রিল ০২, ২০২০| ১৮চৈত্র১৪২৬

আন্তর্জাতিক খবর

কভিড-১৯

মোট মৃত্যুর অর্ধেকেরও বেশি ইউরোপের তিন দেশে

বণিক বার্তা অনলাইন

বর্তমানে বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের নতুন কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে ইউরোপ। মহাদেশটির ইতালি,ফ্রান্স ও স্পেনে গত ২৪ ঘন্টায় প্রাণ হারিয়েছেন সহস্রাধিক। বিশ্বজুড়ে কভিড-১৯ এ এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৬ হাজার ৫৫৭ জন। এর মধ্যে ইউরোপের তিন দেশেই মারা গেছেন অর্ধেকেরও বেশি, ৯ হাজার ২৪৮ জন।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাস সবচেয়ে মারাত্মক রূপ ধারণ করেছে ইতালিতে। দেশটিতে গতকালও প্রাণ হারিয়েছেন ৬৫১ জন। এদের মধ্যে ৩২০ জনই লম্বার্ডি অঞ্চলের বাসিন্দা। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৭৭ জনে। যা ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এদিকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ হাজার ৯২৭ জন। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭ হাজার ৪৩২ জন।

ইতালির পরেই আসে স্পেনের নাম। দেশটিতে গতকাল আরও ৪৩৫ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ হাজার ১৩৬ জন ও মারা গেছেন ২ হাজার ৩১১ জন। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৩৫৫ জন।

ফ্রান্সে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ১৮৬ জন কোভিড-১৯ রোগী প্রাণ হারিয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮৬০ জনে। এছাড়া আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ১২৩ জন ও সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২০০ জন।

যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ৬ হাজার ৭২৬ জন ও মারা গেছেন ৩৩৫ জন । নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৪ হাজার ৭৬৪ ও মৃত্যু ২১৩। জার্মনিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ৫৬ জন ও মারা গেছেন ১২৩ জন। সুইজারল্যান্ডে আক্রান্ত ৮ হাজার ৭৯৫ ও মৃত্যু ১২০। সুইডেনে আক্রান্ত ২ হাজার ৪৬ জন ও  মারা গেছেন ২৭ জন। ডেনমার্কে আক্রান্ত ১ হাজার ৫৮২ জন ও মৃত্যু ২৪। এছাড়া ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলোতেও বাড়ছে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা।

প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী নভেল করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে ৩ লাখ ৮১ হাজার ৪৯৯ জন। এর মধ্যে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজারেরও বেশি। সব মিলিয়ে বিশ্বের মোট ১৬৭টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে নভেল করোনাভাইরাস। বিশ্বজুড়ে ঘরে অবস্থান কিংবা লকডাউনের আওতায় এসেছে ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ। কভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে আঞ্চলিক ও সার্বিক লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছে ৫০টিরও বেশি দেশ। এর মধ্যে কিছু দেশের সরকার এই লকডাউনকে করেছে বাধ্যতামূলক। অন্যরা শুধু নাগরিকদের ঘরে অবস্থানের পরামর্শ দিয়েছে। 


সূত্র: বিবিসি, সিএনএন ও জনস হপকিনস

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন