রবিবার | আগস্ট ০৯, ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

খবর

দিয়াবাড়ীতে কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র বাতিল নয়, বিলম্বিত হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টরের দিয়াবাড়ীতে রাজউকের আবাসিক প্রকল্পে কোয়ারেন্টিন সেন্টার স্থাপন করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়নি। উদ্ভূত পরিস্থিতে কার্যক্রম কিছুটা বিলম্বিত করা হয়েছে।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ ইবনে জায়েদ আজ শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, দিয়াবাড়ীতে কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র হচ্ছে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী। গতকাল কিছুটা অস্থিরতা দেখা দিয়েছিল। এজন্য কোয়ারেন্টিনের কার্যক্রম কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বাংলাদেশে সংক্রমণ ও বিস্তৃতির সম্ভাব্যতা এবং প্রেক্ষাপট বিবেচনায় বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্তে দিয়াবাড়ী ও আশকোনা হজ ক্যাম্প কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রের দায়িত্ব সেনাবাহিনীর হাতে ন্যস্ত করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এ দুটি স্থানে কোয়ারেন্টিনের সব ধরনের কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

আইএসপিআরের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ ইবনে জায়েদ জানান, সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এ দুটি কোয়ারেন্টিন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিদেশ ফেরতদের প্রয়োজনীয় স্ক্রিনিং করার পর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে নির্বাচিত ব্যক্তিদের বিমানবন্দরে প্রয়োজনীয় ইমিগ্রেশন কার্যক্রম শেষে সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা হবে।

গতকাল শুক্রবার প্রকল্প কম্পাউন্ডে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে কাজ শুরু হলে কয়েকশ বাসিন্দা প্রতিবাদ জানাতে সড়কে নেমে আসেন।

স্থানীয়রা বলছেন, কোয়ারেন্টিনের জন্য ঠিক করা কুঞ্জলতা কম্পাউন্ডের চারটি ভবনে ৮৪টি করে ফ্ল্যাট রয়েছে। এসব ফ্ল্যাটসহ সর্বমোট ৩৩৬টি ফ্ল্যাট কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। এখানে প্রায় তিন হাজার মানুষ বসবাস করছে। এর মধ্যেই এখানে কোয়ারেন্টিন সেন্টার খোলা হচ্ছে। এমন সিদ্ধান্তের ফলে স্থানীয়দের স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ার শঙ্কা রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন