শুক্রবার | জুন ০৫, ২০২০ | ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

দেশের খবর

কুষ্টিয়ায় চাচা হত্যার দায়ে ভাতিজার মৃত্যুদণ্ড

বণিক বার্তা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়া কুমারখালী থানায় দায়েরকৃত স্কুল শিক্ষক মুন্সী রবিউল ইসলামকে হত্যা মামলায় ভাতিজা সোহাগের  মৃত্যুদণ্ড এবং অপর তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ প্রত্যেকের ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেলা ও জায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী চার আসামির উপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত হলেন- কুমারখালী উপজেলার দয়ারামপুর গ্রামের মুন্সী রেজাউল করীমের ছেলে মুন্সী মো. সোহাগ (৫৫)। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- একই গ্রামের মৃত. মজিবর রহমানের ছেলে মো. রাজু আহমেদ (৩৫), কোমরকান্দি গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে রুবেল (৩০) এবং দূর্গাপুর গ্রামের হাতেম শেখের ছেলে আজাদ (৪০)।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি, রাত ১টায় উপজেলার হোগলা মহেন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুন্সী রবিউল ইসলামকে তার নিজ বাড়িতে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা আগ্নেয়াস্ত্রের গুলিতে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এঘটনায় নিহতের মা হাওয়া খাতুন বাদি হয়ে কুমারখালী থানায় অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে হত্যা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে এই হত্যাকান্ডে চার আসামির জড়িত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতার ভিত্তিতে ২০১৬ সালের ৪ এপ্রিল দ: বি: ৩০২/৩৪ ধারায় আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ।

মামলাটির মোটিভ সম্পর্কে প্রোসিকিউশন সূত্রে জানা যায়, এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রধান আসামি নিহতের আপন ভাইয়ের ছেলে মুন্সী মো. সোহাগের সাথে জমিজমা সংক্রান্ত দ্বন্দ্বের জেরে অপর আসামিদের সাথে যোগসাজশে পরিকল্পিত হত্যা করে।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌশুলি অ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন