শুক্রবার | জুন ০৫, ২০২০ | ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

টকিজ

ব্রাড পিটের চোখে হলিউড

হলিউড এক ধরনের মাইক্রোস্কোপ...

ব্রাড পিট বছর অস্কারে কোয়ান্টিন টারান্টিনোর ওয়ান্স আপন টাইম ইন হলিউড ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা পার্শ্ব অভিনেতার অস্কার জিতেছেন। ছবিতে তিনি লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিওর চরিত্রের একনিষ্ঠ স্টান্টম্যানের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। কোনো পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবিতে এটাই দুই তারকা অভিনেতার প্রথম একসঙ্গে কাজ করা। ব্রাড পিটের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে ডি ক্যাপ্রিও এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘ব্রাডের সঙ্গে কাজ করার একটা দারুণ ব্যাপার হলো, প্রথম দিন থেকেই স্বস্তির পরিবেশ গড়ে ওঠা। কাজ করার জন্য আমাদের অনেক বেশি প্রস্তুতির দরকার হতো না। চিত্রনাট্য নিয়ে আলোচনা করতাম এবং চরিত্র দুটির মধ্যকার সম্পর্ক আমরা অনেকটা প্রবৃত্তিগতভাবেই বুঝে গিয়েছিলাম।হলিউড হলিউডে নিজের অভিজ্ঞতা নিয়ে ওপেন ম্যাগাজিনে নোয়েল ডি সুজার সঙ্গে কথা বলেছেন ব্রাড পিট। সাক্ষাৎকারটি ভাষান্তর করেছেন শানজিদ অর্ণব

হলিউড আপনার কাছে কী অর্থ বহন করে?

আসলে আমি হলিউডে বাস করি। আমি হলিউডের প্রতীকটির কাছেই বাস করি, চিহ্নটির ঠিক নিচেই। আমি সবসময় প্রতীকটি দেখতে পাই। হলিউড আমার কাছে তেমন একটি স্থান, যেখানে আমাদের গল্পগুলো বলা হয়, আমাদের মন জীবনের বিভিন্ন অজানা দিক উন্মোচন করা হয়। আমাদের গল্পগুলো দেখে আমরা হাসি, কাঁদি। হলিউড মানবচরিত্রের জন্য মাইক্রোস্কোপ হিসেবে কাজ করে। এটাই আমার কাছে হলিউড। তাছাড়া আমি অনুমান করি যে সবকিছুর একটা পুরনো ঝলক থাকে, কিন্তু সেদিকে আমি কখনো আকৃষ্ট হইনি।


 

লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিওর সঙ্গে এবারই আপনি প্রথম কাজ (ওয়ান্স আপন টাইম ইন হলিউড) করলেন। কেমন লেগেছে?

নাহ, লিওনার্দো ওভাররেটেড (হেসে); সে দারুণ মানুষ। লিওনার্দোর কাজের প্রতি আমার শ্রদ্ধা আছে। চলচ্চিত্রজগতে সে নিজের যে চিহ্ন তৈরি করেছে তা সম্মানীয়। লিওর অবদান এরই মধ্যে অসামান্য। এসব বিবেচনায় নিলে তার সঙ্গে কাজ করতে যাওয়াটা অবশ্যই বিরাট চাপের, লিওর মানের অভিনেতার সঙ্গে কাজ করতে গেলে চাপ থাকবেই। কারণ তখন আপনার ঘাড়ে বিরাট দায়িত্ববোধ চেপে বসবে। তবে সে টেবিলের অন্য প্রান্তটি ধরে থাকবে, যা স্বস্তিদায়ক। আর আমাদের ক্ষেত্রে একটা বিষয় হলো এমন যে, আমরা প্রায় একই সময়ে বেড়ে উঠেছি। আমরা দুজনই ছবি নির্মাণের একই বাস্তুতন্ত্রের মধ্যে বিকশিত হয়েছি। ব্যবস্থায় টিকে থাকতে আমাদের দুজনকেই বিভিন্ন ধরনের সমঝোতা করতে হয়েছে।

এখানেটিকে থাকাকথাটিতে জোর দিচ্ছি, ইন্ডাস্ট্রি আপনাকে গিলে ফেলতে এবং দ্রুতই থুতু হিসেবে ফেলে দিতে পারে। আমি লিওনার্দোর পছন্দ কাজকে সম্মান করি।

ওয়ান্স আপন টাইম ইন হলিউড ছবিতে কাজ করতে গিয়ে গল্পের সঙ্গে আমরা হলিউডে আমাদের জীবনের অনেক মিল খুঁজে পেয়েছি। হলিউডকে আমরা ভালোবাসি আবার ঘৃণা করি, কিন্তু শেষমেশ ভালোবাসি। ওয়ান্স আপন টাইম ইন হলিউড ছবিটা আমাদের জন্য খুব ঘনিষ্ঠ ছিল, প্রথম দিন থেকেই আমরা কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেছি। ছবিটিতে কপটতার কোনো সুযোগ ছিল না।


 

স্ট্রিমিং নিয়ে আপনার ভাবনা কী?

যখন একটা কাজ শেষ হয় তখন অন্য আরেকটা কাজ নিয়ে হুড়োহুড়ি শুরু হয়। চলচ্চিত্র শিল্পে অভিনয় শিল্পী ক্রুদের কাজ দরকার। স্ট্রিমিংয়ের মাধ্যমে এখন চমৎকার সব ব্যাপার ঘটছে। প্রতিভাবান লেখক, অভিনেতা-অভিনেত্রী, পরিচালকরা অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি কাজের সুযোগ পাচ্ছেন। আমি বলতে বাধ্য হচ্ছি যে, কারণে আমরা প্রতিভার দারুণ ঢেউ দেখতে পাচ্ছি। স্ট্রিমিংয়ের যুগে আমরা দেখতে পাচ্ছি প্রতিভাবানরা আরো বেশি বেশি সুযোগ পাচ্ছেন।

আপনার কি কোনোমিটুঅভিজ্ঞতা আছে?

আপনি কি কাস্টিং কাউচের ঘটনার কথা বলছেন? আমি যখন কাজ শুরু করি, তখন সত্যিই কিছু দানবীয় চরিত্রের মানুষকে দেখেছি। কাজের শুরুর দিকে বা হাতে কাজ না থাকলে তারা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকেন।

আমি ওজার্ক থেকে হলিউডে গিয়েছি, শুরুতে তো কাউকেই চিনতাম না, কীভাবে চলতে হবে তাও জানতাম না। আমি নিশ্চিতভাবেই কিছু দানবীয় মানুষের দেখা পেয়েছি। গত কয়েক বছরে ধরনের যত ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এসেছে, সে রকম কোনো কিছুর সঙ্গে আমি নিজের অভিজ্ঞতাকে তুলনা করছি না। আমি শুধু বলতে চাইছি, সে রকম একটা আবহ দেখেছি। কিন্তু একই সময়ে আমি অনেক ভালো মানুষেরও দেখা পেয়েছি, যারা হলিউড ইন্ডাস্ট্রি জীবন নিয়ে আমার চেয়ে স্মার্ট প্রাজ্ঞ ছিলেন। আমি জানি না। এটা একটা পার্থক্য তৈরি করেছে। আমি বিষয়ে সময় ব্যয় করতে রাজি নই। কিন্তু আমি মনে করি গত দুই বছরে যেসব বিষয় সামনে এসেছে, সেগুলোকে পুনর্মূল্যায়ন করা জরুরি।

 

এখনো অভিনয় উপভোগ করেন?

অবশ্যই। আমি এখনো অভিনয়কে উদযাপন করি। যাদের সঙ্গে কাজ করি, তাদের সঙ্গও উপভোগ করি। তবে এটা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ যে আপনি যখন সময় ব্যয় করছেন, তখন কার সঙ্গে করছেন কিংবা কোন বিষয়ে।

এই বিভাগের আরও খবর

আরও পড়ুন